আজকে দুবাই সোনার দাম কত ২০২৪

পুরো বিশ্বের মধ্যে প্রাচীনকাল থেকেই এই সোনা ব্যবহার আসছে। সোনা অতি মূল্যবান একটি ধাতু। এই সোনা অপরিবর্তনীয় বৈশিষ্ট্য ধারণ করে এবং বিনিময় সহজ একটি মাধ্যম হিসেবে প্রাচীনকাল থেকেই পরিচিত। এই অতি মূল্যবান সোনা দিয়ে পূর্বে বিভিন্ন অলংকার তৈরীর জন্য ব্যবহার করা হতো। এবং বিভিন্ন দেশের প্রচলিত মুদ্রা তৈরির জন্য এই সোনাকে ব্যবহার করা হতো।

প্রাচীন কাল থেকেই আজ অবধি পর্যন্ত এই সোনা দিয়ে বিভিন্ন বাহারি রকমের অলংকার তৈরি করা হয়। বাংলাদেশ সহ পুরো বিশ্বে এই সোনার অনেক কদর রয়েছে।

সৌদি আরব, কুয়েত, কাতার ইত্যাদি মধ্যপ্রাচ্য ও পশ্চিমা দেশগুলো সহ বিশ্বের সকল দেশেই সোনার প্রচুর ব্যবহার করা হয়। এই সোনার মধ্যে সবথেকে ২৪ ক্যারেট দাম সব থেকে বেশি। বাংলাদেশের ২৪ ক্যারেট সোনার দাম প্রায় ১ লক্ষ টাকার উপরে। তবে আজকে দুবাই সোনার দাম কত তা অনেকের অজানা। একারনে এখান থেকে আপনি স্বর্ণের দামের আপডেট তথ্যটি জানতে পারবেন।

আজকে দুবাই সোনার দাম কত

দুবাইয়ে ২৪ ক্যারেট ১ ভরি স্বর্ণের মূল্য প্রায় ৯০ থেকে ৯৭ হাজার টাকা। তবে এই স্বর্ণ দিয়ে তারা অলংকার তৈরি করতে পারে না। কেননা এই ২৪ ক্যারেট স্বর্ণ তে শতভাগ খাঁটি সোনা পাওয়া যায়। যা অলংকারদের জন্য বিশুদ্ধ নয়। তবে আজকের দুবাই সোনার রেট অনুযায়ী ক্যারেটের সোনার মূল্য ৫৬ হাজার টাকা।

আপনি বাংলাদেশ যথাসময়ে দেখতে পান তা বাইরের দেশ থেকে আমদানি করে নিয়ে আসা হয়। কিন্তু দুবাইয়ে সোনা খনন করে উত্তোলন করা হয়। সেই দেশে সোনার প্রচুর ব্যবহার হয়। এবং দুবাইয়ের সোনার দাম বাংলাদেশে থেকে অনেক কম।২৪ ক্যারেট সোনা, ১৮ ক্যারেট সোনা, ২২ ক্যারেট সোনা ও ২১ ক্যারেট সোনার মূল্য বাংলাদেশ বাংলাদেশের থেকে অনেক কমে পাওয়া যায়।

দুবাই সোনার দাম ২০২৪

এই দুবাইতে খাঁটি সোনা উত্তোলন করা হয়। এবং অনেক কম দামে এই দুবাই থেকে সোনা সংগ্রহ করতে পারবেন। এই দুবাইয়ে প্রতি গ্রাম সনের মূল্য ২২৩.৭৫ দিরহাম বা ৬৭০৫.৭৮ টাকা। অর্থাৎ বাংলাদেশি টাকায় ২২ ক্যারেট এক  গ্রাম স্বর্ণের মূল্য ৬৭০০ টাকা। তবে এই স্বর্ণের দাম প্রতিনিয়ত উঠানামা করে।

২২ ক্যারেট গোল্ড রেট দুবাই

বিভিন্ন ধরনের অলংকার তৈরির জন্য ২২ ক্যারেট সোনা একদম সঠিক। এই ২২ ক্যারেট সোনাতে ৯১ শতাংশ খাঁটি সোনা পাওয়া যায়। এবং বাকি ৯ শতাংশ জিংক এবং কপার এর ধাতু পাওয়া যায়। অর্থাৎ ২৪ ক্যারেট সোনা বা অন্যান্য ক্যারেট সোনার থেকে ২২ ক্যারেট সোনা অদিক টেকসই।

অর্থাৎ দুবাইয়ের ২২ ক্যারেট এক গ্রাম স্বর্ণের মূল্য ৬৬৭৩ টাকা ৫৯ পয়সা। এবং দুবাইয়ের ২২ ক্যারেট  এক ভরি স্বর্ণের মূল্য ৭৭ হাজার ৮১৪ টাকা ০৫ পয়সা। এবং ২২ ক্যারেট এক আনা সোনার মূল্য ৪৬৮ টাকা। অর্থাৎ এই দামগুলো বাংলাদেশের টাকা অনুযায়ী দুবাইয়ের মূল্য।

দুবাই ১ ভরি সোনার দাম কত ২০২৪

সর্বশেষ আপডেট তথ্য অনুযায়ী দুবাইয়ের ২২ ক্যারেট এক ভরি সোনার মূল্য ৭৭৮১৪ টাকা। এবং দুবাইয়ের ২১ ক্যারেট ১ ভরি স্বর্ণের মূল্য ৭৪ হাজার ৮০০ টাকা। এবং দুবাইয়ের ১৮ ক্যারেট ১ ভরি স্বর্ণের মূল্য ৬৫ হাজার টাকা অথবা তার বেশি।

দুবাই ২১ ক্যারেট ১ ভরি স্বর্ণের দাম কত

আজকের এ সর্বশেষ আপডেট তথ্য অনুযায়ী দুবাইয়ের ২১ ক্যারেট এক ভরি স্বর্ণের মূল্য ৭৪ হাজার ৮০০ টাকা। বা এই মূল্য এর থেকেও কম হতে পারে অথবা বেশি হতে পারে। এই হিসেবে দুবাই ২১ ক্যারেট ১ গ্রাম স্বর্ণের মূল্য ৬ হাজার ৪১৫ টাকা ০৯ পয়সা। এবং দুবাইয়ের ২১ ক্যারেট ১ আনা সোনার মূল্য ৪৬৭৫ টাকা। আবারো বলে নিচ্ছি এই সোনার দাম যে কোন সময় পরিবর্তন হতে পারে।

দুবাই ১৮ ক্যারেট ১ ভরি স্বর্ণের দাম কত

এই দুবাইয়ের ১৮ ক্যারেট যে একবারই স্বর্ণের মূল্য প্রায় ৬৫ হাজার টাকা। তবে এই ১৮ ক্যারেট সোনার মূল্য যে কোন সময় দুবাই রেট অনুযায়ী পরিবর্তন হতে পারে। অর্থাৎ বাংলাদেশে ১৮ ক্যারেট সোনার মূল্য ৭৯ হাজার ৪০৪ টাকা। কিন্তু দুবাইয়ে প্রায় ১০ হাজার টাকার থেকেও পার্থক্য।

অর্থাৎ দুবাই ১৮ ক্যারেট ১ গ্রাম সোনার মূল্য ৫৫৭৪ টাকা। এবং দুবাইয়ের ১৮ ক্যারেট এক আনা সোনার  মূল্য ৪ হাজার ৬২ টাকা। এবং চার আনা সোনার মূল্য ১৬২৫০ টাকা। তবে এই সোনা দুবাইয়ে খুব কমই ব্যবহৃত হয়। তবে বাংলাদেশে অনেক বেশি ব্যবহার করা হয়।

আরব আমিরাতে সোনার দাম কত

সংযুক্ত আরব আমিরাতের সকল শহরের গড় সোনার মূল্য হচ্ছে ৭৭৬৩৯.৩৯ টাকা। অর্থাৎ ১ ভরি স্বর্ণের মূল্য ৭৭৬৩৯ টাকা ৩৯ পয়সা। এবং ১ গ্রাম সোনার মূল্য ৬৬৫৮.৬১ টাকা। এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের ১ আনা সোনার মূল্য ৪৮৫২.৪৬ টাকা। এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের চার আনা সোনার মূল্য বাংলাদেশি টাকায় ১৯৪০৯ টাকা ৮৪ পয়সা।

বাংলাদেশের সাথে দুবাই স্বর্ণের দামের পার্থক্য

বাংলাদেশের ১ ভরি সোনার মূল্য ৯৭০৪৪ টাকা। যা গত মাসের সর্বোচ্চ সোনার ঘুরে ছিল ১ লক্ষ ১ হাজার ১৪৪ টাকা। তবে বাংলাদেশের সোনার মান অনেকটা কমে গিয়েছে। তবে দুবাইয়ের সর্বোচ্চ ১ ভরি স্বর্ণের মূল্য ৭৭ হাজার ৮১৪ টাকা। অর্থাৎ বাংলাদেশের থেকে দুবাইয়ের স্বর্ণের দামের অনেকটা পার্থক্য লক্ষ্যনীয় হয়। অর্থাৎ দুবাইয়ের সাথে বাংলাদেশের সোনার মূল্যের পার্থক্য প্রায় ২০ হাজার টাকা।

শেষ কথা

যারা দুবাইয়ে বসবাস করেন তারা হয়তো এই পোস্ট থেকে অনেক বেশি উপকৃত হয়েছে। কেননা বাংলাদেশে আসার পূর্বে অনেকেই বিভিন্ন অলংকার এবং সোনার গহনা নিয়ে আসতে চায়। এজন্য তাদের আজকে দুবাই সোনার দাম কত জেনে নেওয়া অনেক বেশি জরুরি হয়ে পড়ে। যদি এই পোস্ট হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনার আশেপাশের ব্যক্তিদেরকে শেয়ার করে জানিয়ে দিবেন। ধন্যবাদ

Ashraful Islam
Ashraful Islam
Articles: 254

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *