ইতালি ভিসা খরচ ২০২৪ – যেতে কত টাকা লাগে?

বর্তমান সময়ে সবাই চায় ভালো একটা রাষ্ট্রে যাইতে। বাংলাদেশ এর অনেক মানুষ আছে পশ্চিম ইউরোপ দেশ ইতালি যাওয়ার কথা ভাবতাছেন। আমরা অনেক লোক আছি ভ্রমন করার উদ্দেশ্যে আবার কিছু মানুষ কাজের জন্য এবং কিছু লোক উচ্চশিক্ষিত লাভ করার জন্য। কিন্তু বেশির ভাগ মানুষ আছে ইতালি সম্পর্কে কোন তথ্য জানে না। বাংলাদেশ এর এখন অনেক মানুষের সপ্ন ইতালি রাষ্ট্রে যাওয়ার। কিন্তু কিভাবে যেতে হয় কত টাকা লাগবে সে তথ্য জানেন না। আজকে আপনাদের সাথে ইতালি ভিসা খরচ ২০২৪ সম্পর্কে জানাবো। বর্তমান সময়ে কত টাকা হলে আপনি ইতালির ভিসা করতে পারবেন সে তথ্য জানাবো।

আপনি ইতালি কিভাবে যাবেন সে তথ্য না জানেন। তাহলে আমাদের এই লেখাটি পড়ে অতি সহজেই ইতালি যাওয়ার ভিসা করতে পারবেন। আজকে আপনাদের সাথে বিভিন্ন রকম ভিসা সম্পর্কে আলোচনা করবো। আপনি আমাদের দেওয়া লেখাটি পড়ে স্টুডেন্ট ভিসা সহ কাজের ভিসা এবং ভ্রমন করার ভিসা সম্পর্কে জানতে পারবেন। এবং ইতালি যাওয়ার ভিসা কোথায় থেকে কিভাবে আবেদন করবেন সে তথ্য জানাবো। আপনি ইতালি ভিসা খরচ কত হবে সে সম্পর্কে জানতে হলে আমাদের দেওয়া সম্পূর্ন লেখাটি পড়তে থাকুন।

ইতালি ভিসা খরচ

বর্তমান সময়ে ইতালি যাওয়াটা অনেক কঠিন। কারণ ইতালি যে কেউ ভিসা করতে পারে না। তবে ইতালি যাওয়ার দুই ধরনের ভিসা রয়েছে। একটি সিজনাল ভিসা ও আরেকটি নন সিজনাল ভিসা। যারা চিকিৎসা বা ভ্রমন করার জন্য এবং অনেকেই পড়াশোনা করার জন্য ইতালি যেতে চায় তাদের কে সিজনাল ভিসা করার জন্য আবেদন করতে হবে। এবং যারা কাজের ভিসার জন্য ইতালি যাবেন তাদের কে নন সিজনাল ভিসা করার জন্য আবেদন করতে হবে। আপনাদের ইতালি ভিসা খরচ সহ কিভাবে যাবেন বিস্তারিত আলোচনা করেছি।

ইতালি যেতে কত টাকা লাগে

অনেকেই আছেন ইতালি যেতে চান। আসলে ইতালি যাওয়া বর্তমান যুগে অনেক ভাগ্যের ব্যাপার। সবাই এখন ইতালি ভিসা করতে পারে না। যাদের আত্বীয় স্বজন ইতালি তে থাকে তারাই একমাত্র ভিসা দিতে পারে। আপনি এখন কোন দালাল বা এজিন্সির মাধ্যমে অতি সহজেই ইতালি ভিসা পাবেন না। আপনি চাইলে কিছু দিনের জন্য সিজনাল ভিসা করে ইতালি যেতে পারবেন। আপনি যদি স্টুডেন্ট বা ভ্রমন করা অথবা চিকিৎসা করার জন্য ইতালি যেতে চান তাহলে আপনার সব খরচ দিয়ে  ৪ লক্ষ থেকে ৫ লক্ষ টাকা লাগবে। এবং নন সিজনাল ভিসা কাজের ভিসা যেতে চাইলে  তাহলে আপনাকে সর্বোমোট ১১ লক্ষ থেকে ১২ লক্ষ টাকা লাগবে।

ইতালি ভিসা আবেদন লিংক

বর্তমান সময়ে অনেক মানুষ ইতালি যেতে চায়। কিন্তু তারা সঠিক ভাবে ভিসা করার জন্য আবেদন এর লিংক খুঁজে পায় না। আজকে আমাদের এই লেখাটি পড়ে আপনি চাইলে আবেদন করে রাখতে পারেন। কারন ২০২৪ সাল থেকে ইতালি সরকার জানিয়েছে বিভিন্ন দেশ থেকে লোক নেওয়া হবে। আপনি যদি ইতালি যেতে চান তাহলে আপনাকে ইতালি আবেদন লিংকে ঢুকে আবেদন করতে হবে। আপনি ইতালি ভিসা আবেদন লিংক লিখে গুগোল এ সার্চ করলে আপনি প্রথমে ওয়েবসাইট পেয়ে যাবেন। আপনি itali visa application link : https://www.estri.it/visti/home/eng.asp আপনি চাইলে এই লিংক এ ঢুকে আবেদন করতে পারবেন।

ইতালি স্পন্সর ভিসা ২০২৪ আবেদন

এই ইতালি যাওয়ার অনেক গুলো ভিসার ক্যাটাগরি রয়েছে। অনেকেই স্পন্সর ভিসা ইতালি যেতে চান। ইতালি স্পন্সর ভিসা আসলে কাজের ভিসা । এই ভিসার মেয়াদ থাকে ১ বছর পরে ভিসা মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে আপনাকে ৩ বছরের জন্য নবায়ন করার সুযোগ দিবে সরকার। প্রতি বছররেই প্রবাসি নিউজ থেকে স্পন্সর ভিসা নিয়োগ দিয়ে থাকে। আপনি চাইলে অনলাইন এর মাধ্যমে ইতালি স্পন্সর ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। প্রথমে আপনাকে গুগোলে ঢুকে স্পন্সর ভিসা আবেদন লিখে সার্চ করলে অফিসিয়াল ইতালি ওয়েবসাইট এ ঢুকে আবেদন করতে পারবেন।

ইতালি কৃষি ভিসা ২০২৪ আবেদন ফরম

বেশির ভাগ সময়ে কৃষি কাজের জন্য ইতালি তে লোক নিয়ে থাকে। কারন ইতালি তে ফসলি জমি আবাদ অনেক বেশি হয়। তাই এই কৃষি কাজ করার জন্য অনেকই ইতালি যেতে চাইতেছেন। প্রথমে আপনাকে অনলাইনে কৃষি ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। গুগোলে গিয়ে ইতালি কৃষি ভিসা লিখে সার্চ করলে প্রথমে তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট এ ঢুকে আবেদনের ফরম পুরন করতে হবে এবং তারপর সাবমিট করে দিতে হবে।

ইতালি স্পন্সর ভিসা ২০২৪ আবেদনের সময়

অনেক মানুষ আছে তারা ইতালি স্পন্সর ভিসার জন্য অনলাইনে আবেদন করতে চান। কিন্তু কোন সময় আবেদন করতে হবে সেই তথ্য জানেন না। আবেদন করার জন্য প্রতি বছর নিদিষ্ট একটা সময় দিয়ে থাকে। আপনি চাইলে ২০২৪ সালে আর আবেদন করতে পারবেন না। কারন ২০২৩ সালে ১ই ফেব্রুয়ারী থেকে শুরু করে ১ই মার্চ পর্যন্ত সময় ছিল। ইতি মধ্যেই এই বছর ইতালি স্পন্সর ভিসা আবেদন সময় শেষ হয়েছে। আপনাকে পরের বছরের আবেদনের জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

ইতালি এগ্রিকালচার ভিসা ২০২৪

আর ইতালিতে প্রতি বছরেই এগ্রিকালচার কাজের জন্য বিভিন্ন দেশে ভিসা অফার দিয়ে থাকে। এবছরেও তারা বিভিন্ন দেশ থেকে কৃষি কাজ এবং অন্যান্য কাজের জন্য মোট ৮২,৭০৫ জন লোক নিবে ইতালিতে। আপিন চাইলে এই এগ্রিকালচার ভিসা আবেদন করতে পারবেন। শুধু মাত্র ৪৪ হাজার ভিসা কৃষি কাজের জন্য নিবে। আমাদের লেখা গুলো পরলে কিভাবে আবেদন করতে হয় সেগুলো তথ্য জানতে পারবেন।

ইতালি ভিসা আবেদন ফরম ২০২৪

এই ইতালি ভিসা করার জন্য অনেকই অনলাইনে খুঁজে থাকেন কিভাবে আবেদন করবেন। আজকে আপনাদের কে জানাবো কিভাবে ইতালি ভিসা করবেন। আপনি আমাদের লেখা টি পড়লে অতি সহজেই অনলাইনের মাধ্যমে ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। প্রথমে আপনাকে গুগোলে ঢুকে ইতালি ভিসা আবেদন লিখে সার্চ করলে তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট এ ঢুকে তাদের দেওয়া ফরম পুরন করে ইতালি ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

ইতালি স্টুডেন্ট ভিসা দাম কত ২০২৪

বর্তমান সময়ে স্টুডেন্ট ভিসা অনেকটাই চাহিদা। কারণ স্টুডেন্ট ভিসা ইতালি গেলে অনেকটাই সুযোগ সুবিধা পাওয়া যায়। আজকে আপনাদের কে স্টুডেন্ট ভিসার খরচ সম্পর্কে জানবো। অনেকই স্টুডেন্ট ভিসা যাইতে চান কিন্তু কত খরচ হবে সে তথ্য জানে না। প্রথমত আপনাকে ব্যাংক এ ৫ লক্ষ টাকার স্টেটম্যান্ট দেখাতে হবে। তারপর আপিন যদি ইতালি স্টুডেন্ট ভিসা করতে চান তাহলে আপনাকে ৩ লক্ষ থেকে সাড়ে ৪ লক্ষ টাকা খরচ রাখতে হবে।

ইতালি কাজের ভিসা ২০২৪

বেশির ভাগ মানুষ আমরা কাজের জন্য ইতালি তে যেয়ে থাকি। আজকে আপনাদের সাথে ইতালি কাজের ভিসা সম্পর্কে আলোচনা করবো। যারা ইতালি কাজের ভিসা করতে চাইতেছেন তাদের কে নন সিজনাল ভিসা করতে হবে। তাহলে আপনি কাজ করতে পারবেন। বর্তমান সময়ে আপনাকে ১০ লক্ষ থেকে ১১ লক্ষ টাকা বাজেট রাখতে হবে। তাহলে আপনি ইতালি কাজের ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

বাংলাদেশ থেকে ইতালি যাওয়ার উপায়

বাংলাদেশ থেকে অনেক মানুষ ইতালি যেতে চায়। কিন্তু অনেকেই জানেন না কিভাবে ইতালি যেতে হয়। আমাদের দেওয়া লেখাটি পড়লে আপনি সহজেই বাংলাদেশ থেকে ইতালি যেতে পারবেন। আপনাকে ইতালি যেতে হলে অবশ্যই আপনাকে বিমানের মাধ্যমে যেতে হবে। বিমানে যেতে হলে আপনাক একটি পাসপোর্ট করতে হবে। তারপর অনলাইন থেকে অথবা কোন এজেন্সি মাধ্যমে ভিসা করতে হবে। তারপর বিমানের টিকেট কেটে অতি সহজেই বাংলাদেশ থেকে ইতালি যেতে পারবেন।

ইতালি ভিসা আবেদন করতে কি কি লাগে

বর্তমান সময়ে অনেক গুলো কাজ করতে হবে আবেদন করার জন্য। কারন এখন ইতালি ভিসা পাওয়াটা অনেকটাই কঠিন। আজকে আপনাদের কে ভিসা আবেদন করতে কি কি লাগে সেই তথ্য জানাবো। প্রথমে আপনাকে পাসপোর্ট করতে হবে। তার পর কোন দালাল বা এজেন্সি মাধ্যমে ইতালি ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। আপনার যদি নিকট আত্বীয় থাকে তাহলে আপনি ভিসা করার জন্য আবেদন করতে পারবেন। কারন বর্তমানে কারো মাধ্যমে ইতালি ভিসা করা যায় না। যখন ইতালি থেকে নিয়োগ দিবে তখন আপনি প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ  প্রবাসী কল্যান অফিসে জমা দিতে হবে এবং আপনি কি ভিসা যাবেন সিজনাল ভিসা এবং নন সিজনাল ভিসা সিলেক্ট করতে হবে। তাহলে আপনি ইতালি ভিসা পাবেন।

ইতালিতে কোন কাজের চাহিদা বেশি

ইতালিতে অনেকগুলো কাজ রয়েছে। তার মধ্যে যারা নন সিজনাল ভিসা ইতালি তে যেতে চায় তারা চাইলে অনেক গুলো কাজ করতে পারবে। ইতালিতে কয়েক ধরনের কাজ রয়েছে। যেমন ভবন নির্মান, জাহাজ নির্মান আপনার চাইলে এই কাজ গুলো করতে পারবেন। এবং ফসলি জমি আবাদ করতে অনেক কর্মী নিয়ে থাকে। হোটেল শ্রমিক, অটো মোবাইল মেকার এবং খাদ্র দ্রব্য উৎপাদন এই সব গুলো কাজের কর্মী নিয়ে থাকে। আপনি চাইলে এইগুলো কাজ করতে পারবেন। ইতালি তে এই কাজ গুলো অনেক চাহিদা রয়েছে।

ইতালি ভিসা চেক করার নিয়ম ২০২৪

অনেকই ভিসা করার পর অনেক টেনশন করে থাকেন। তখন ভাবেন যে আমার ভিসা সঠিক ভাবে হয়েছে কি না। আপনি আমাদের লেখা টি পড়লে আপনার ভিসা নিজেই চেক করতে পারবেন। পরে যেন আপনার ঝামেলা না হয় এই জন্য আপনার ভিসা আগেই চেক করে নিবেন। ভিসা চেক করতে হলে প্রথমে আপনাকে গুগোলে ইতালি ভিসা চেক লিখে সার্চ করতে হবে। তার পর তাদের ওয়েবসাইট এ ঢুকে আপনার রেফারেন্স নাম্বার তারপর আপনার লাষ্ট নাম এবং তাদের দেওয়া ক্যাপচা পুরন করে সার্চ বাটনে ক্লিক করলে ভিসার সকল তথ্য পেয়ে যাবেন।

শেষ কথা

আশা করি আপনি আমাদের লেখাটি পড়েছেন। আজকে এই পোষ্ট এর মাধ্যমে আপনাদের কে ইতালি ভিসা খরচ ২০২৪ সম্পর্কে বিস্তারিত জানিয়েছি। আপনি আমাদের পোষ্ট টি পড়ে সকল তথ্য জানতে পরেছেন। কিভাবে ইতালি যেতে হয় এবং কত খরচ হবে সে সকল তথ্য আমাদের পোষ্টের মাধ্যমে জানতে পেরেছেন। আপনার যদি আমাদের পোষ্ট পড়ে ভালো লাগে তাহলে আশে পাশের বন্ধুদের সাথে শেয়ার করে দিন। ধন্যবাদ

Ashraful Islam
Ashraful Islam
Articles: 253

2 Comments

  1. আমার একজন পরিচিত আছে ইটালি সে ইটালিয়ান সে যদি ভিসা দেই তাহলে কি আমি যেতে পারবো

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *