কানাডা ভিসা পাওয়ার উপায়

কানাডা হলো বিশ্বের মধ্যে দ্বিতীয় শীতলতম দেশ। বিশ্বের অন্যান্য দেশের থেকে কানাডা উন্নত দেশ হিসেবে পরিচিত। প্রত্যেকটা মানুষের স্বপ্ন থাকে উন্নত রাষ্ট্রে যাওয়ার। সবাই বেশি টাকা ইনকাম করার জন্য এক দেশ থেকে অন্য দেশে কাজের উদ্দেশ্যে চলে যাচ্ছে। বর্তমান বাংলাদেশ থেকে অথবা বিভিন্ন দেশ থেকে অনেকেই কানাডা যেতে চাচ্ছেন। আপনি কানাডা যেতে চাইলে অবশ্যই বৈধভাবে ভিসা করতে হবে।

বর্তমানে কানাড়া যাওয়া কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। এখন চাইলেই সহজে কানাডার ভিসা পাওয়া যায় না। প্রতি বছরেই সরকারিভাবে কানাডা যাওয়ার শ্রমিক নিয়োগ করে থাকেন। অনলাইনের মাধ্যমে কানাডার ভিসার জন্য আবেদন করা যায়। অনেকেই রয়েছেন কিভাবে কানাডার ভিসা আবেদন করবেন এই তথ্যগুলো জানেন না। আপনি আমাদের সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়লে কানাডা ভিসা পাওয়ার উপায় এবং বিভিন্ন তথ্য জানতে পারবেন।

কানাডা ভিসা পাওয়ার উপায়

আপনি যদি কানাডায় প্রবেশ করতে চান প্রথমত আপনাকে কি উদ্দেশ্যে যাবেন সেটা ভাবতে হবে। কারণ কানাডায় বিভিন্ন ক্যাটাগরির ভিসা পাওয়া যায়। ভিসা অনুযায়ী বিভিন্ন নিয়ম কানুন এবং খরচ কম বেশি হয়। আপনি যদি কাজের জন্য ওয়ার্ক পারমিট ভিসা করতে চান তাহলে আপনার কাজের অভিজ্ঞতা দেখাতে হবে। সরকারি সার্কুলার অনুযায়ী আপনার অভিজ্ঞতার সনদ এবং অনলাইনের মাধ্যমে ওয়ার্ক পারমিট ভিসার আবেদন করলে কোন এজেন্সির সাহায্যে আপনি ভিসা পেতে পারেন।

অথবা আপনি যদি স্টুডেন্ট ভিসায় অথবা ভ্রমণ করার জন্য ভিজিট ভিসায় কানাডা প্রবেশ করতে চান তাহলে আপনার আলাদা কিছু নিয়ম দেখাতে হবে। কোথায় ঘুরছেন এবং ব্যাংক স্টেটমেন্ট ভ্রমণ করার অভিজ্ঞতা এগুলো দেখিয়ে কোন এজেন্সির মাধ্যমে কানাডার ভিসা পেতে পারেন। এবং স্টুডেন্ট ভিসা করতে চাইলে আগে আপনাকে কানাডার কোন বিশ্ববিদ্যালয় আগে এডমিশন নিয়ে সে কাগজপত্র জমা দিয়ে  স্টুডেন্ট ভিসা করে কানাডায় প্রবেশ করতে পারবেন।

কানাডা ভিসা ক্যাটাগরি

কয়েকটি ক্যাটাগরির কানাডার ভিসা পাওয়া যায়। ভিন্ন ভিন্ন কাজের উদ্দেশ্যে এই ভিসাগুলো দেওয়া হয়। অনেকে রয়েছেন বর্তমান কানাডার ভিসা ক্যাটাগরির সম্পর্কে জানেন না। তারা অনলাইনের মাধ্যমে কয়টি ক্যাটাগরির কানাডার ভিসা পাওয়া যায় এই তথ্য খুঁজতে থাকেন। দেখে নিন কানাডার উল্লেখযোগ্য ভিসার ক্যাটাগরি গুলো।

  1. ওয়ার্ক পারমিট ভিসা।
  2. স্টুডেন্ট ভিসা।
  3. ভিজিট ভিসা।
  4. শ্রমিক ভিসা।
  5. ড্রাইভিং ভিসা।
  6. ফ্রি ভিসা।
  7. ইমিগ্রেশন ভিসা।
  8. মেকানিক্যাল ভিসা।
  9. স্থায়ী বসবাসের ভিসা

কানাডা ভিসা আবেদন ফরম

অনলাইনের মাধ্যমে এখন কানাডার ভিসা আবেদন করা একদম সহজ। আপনি ঘরে বসে থেকেই সার্কুলার অনুযায়ী কানাডার ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। এজন্য আপনাকে প্রথমে কানাডার অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। এই (canada.ca/en/immigration)  এই সাইটের লিংকে প্রবেশ করে সম্পূর্ণ সঠিক তথ্য দিয়ে আপনি কানাডার ভিসার আবেদন ফরম পূরণ করতে পারবেন। এরপর ফরম সংগ্রহ করে কোন এজেন্সির সাহায্যে ভিসা ফি প্রদান করলেই অল্প কিছুদিনের মধ্যেই আপনি ভিসা পেয়ে যাবেন।

কানাডা ভিসা খরচ

সবাই কানাডা যাওয়ার আগে খরচ কত হবে এ সম্পর্কে জানার চেষ্টা করে। কারণ এখন কানাডার ভিসা করতে অত্যধিক দ্বিগুণ খরচ বেড়ে গেছে। এবং চাইলেই সহজেই কানাডার ভিসা পাওয়া যায় না। আপনার কানাডার ভিসার ক্যাটাগরির উপর খরচ নির্ভর করবে।

আপনি যদি সরকারি ভাবে কানাডার ভিসা পেয়ে যান তাহলে ৩ লক্ষ টাকা থেকে ৪ লক্ষ টাকার মধ্যে কানাডা প্রবেশ করতে পারবেন। এবং বাংলাদেশ থেকে কোন এজেন্সির মাধ্যমে কানাডার স্টুডেন্ট ভিসা এবং ভিসা করতে ৪ লক্ষ টাকা থেকে ৫ লক্ষ টাকা খরচ হবে। এবং কাজের ভিসা সহ অন্যান্য ভিসা করতে ৯ লক্ষ টাকা থেকে ১১ লক্ষ টাকা লাগবে।

কানাডা শ্রমিক ভিসা পাওয়ার উপায়

সবচেয়ে কানাডার শ্রমিক ভিসার অনেক চাহিদা বেশি। কারণ সবাই কাজের উদ্দেশ্যেই কানাডার শ্রমিক ভিসা করে থাকেন। কারণ শ্রমিক ভিসায় কানাডা গেলে প্রতি মাসে বেশি টাকা বেতন উত্তোলন করা যায়। কানাডায় তাদের কাজের অনুযায়ী শ্রমিক অনেক কম।

এ কারণে প্রতিবছর সরকারি থেকে কানাডায়  বিভিন্ন দেশেরশ্রমিক নিয়োগ করে থাকেন। আপনি অনলাইনের মাধ্যমে সার্কুলার অনুযায়ী কানাডায় শ্রমিক ভিসা প্রবেশ করতে পারবেন। অথবা কোন এজেন্সির মাধ্যমে বর্তমানে কানাডার শ্রমিক ভিসা পাওয়া সম্ভব। আপনি এভাবেই ভিসা করে কানাডায় যেতে পারবেন।

শেষ কথা

অনেক মানুষের কানাডা যাওয়ার স্বপ্ন রয়েছে। সবাই কাজের উদ্দেশ্যে অথবা ভ্রমন করার জন্য কানাডা যেতে চাচ্ছেন। কিন্তু কিভাবে কানাডা যেতে হবে সেই উপায় জানেন না। কানাডা যেতে হলে সর্বপ্রথম অবশ্যই আপনাকে ভিসা করতে হবে। ইতিমধ্যেই আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে কানাডা ভিসা পাওয়ার উপায় উল্লেখ করেছি। আশা করি আপনি আমাদের সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ে কানাডা ভিসা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে পেরেছেন। ধন্যবাদ

Leave a Comment