ভিশন ইলেকট্রিক চুলা দাম ২০২৪

আধুনিক প্রযুক্তিতে প্রতিনিয়ত নিত্য নতুন ইলেকট্রিক্যাল পণ্য তৈরি হচ্ছে। বর্তমানে গ্যাসের রান্না করার খরচ অনেক বৃদ্ধি হয়েছে। গ্যাসের দাম বৃদ্ধি হওয়ার কারণে বিকল্প একটি ইলেকট্রিক্যাল চুলা বের হয়েছে। ইলেকট্রিক্যাল চুলার মাধ্যমে কম খরচে বিভিন্ন জিনিস রান্না করা যায়। আপনি কারেন্ট থাকলে এই চুলার মধ্যে যে কোন জিনিস রান্না করতে পারবেন। 

বর্তমানে ইলেকট্রিক্যাল চুলা আসার কারণে প্রত্যেকের রান্নার কাজ অনেক সুবিধা হয়েছে। কারণ কোন রকম ঝামেলা ছাড়াই খুব দ্রুত কারেন্টের সাহায্যে বিভিন্ন জিনিস রান্না করা যায়। বাংলাদেশ কয়েকটি কোম্পানির ইলেকট্রিক্যাল চুলা পাওয়া যায়। এর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় কোম্পানি হলো ভিশন। আপনি এই পোস্টটি পড়লে ভিশন ইলেকট্রিক চুলা দাম কত এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

ভিশন ইলেকট্রিক চুলা দাম

প্রত্যেকেই ভিশন ইলেকট্রিক কোম্পানির চুলা কেনার আগে সঠিক দাম জানার চেষ্টা করে। কারণ অনেক সময় কিছু অসাধু ব্যবসায়ী তাদের কাছে পূর্ণ কিনতে গেলে প্রতারিত হতে হয়। কারণ সঠিক দাম জানা না থাকলে দোকানদার যে টাকা বলবে সেই টাকার মধ্যেই চুলা কিনে আনতে হয়। বর্তমানে ভিশন কোম্পানির কয়েকটি কোয়ালিটির ইলেকট্রিক চুলা রয়েছে। প্রত্যেকটি চুলার কোয়ালিটির উপর ভিত্তি করে দাম আলাদা নির্ধারিত আছে। ইলেকট্রিক চুলার মডেল অনুযায়ী আমরা প্রত্যেকটি চুলার আপডেট মূল্য উল্লেখ করেছি।

ভিশন ইলেকট্রিক চুলার মডেল দাম
Vision Infrared Cooker VSN-20A7 ২,৯৯০ টাকা। 
Vision Infrared Cooker VSN-20A1 ৩,০০০ টাকা।
Vision Infrared Cooker VSN-20A7 ৩,২০০ টাকা।
Vision Touch Control Induction Cooker ৩,৭৫০ টাকা। 
Vision Induction Cooker VSN-1204 ৩,৬০০ টাকা।
Vision Infrared Cooker 30A3 Smart Cook ৪,২৫০ টাকা।
Vision Infrared Cooker VSN- NE C11  ৪,৬০০ টাকা।
Vision Infrared Cooker 40A3 Hilife ৫,৫০০ টাকা।

ভিশন ইলেকট্রিক চুলা কি

কারেন্টের সাহায্যে নতুন ভিশন ইলেকট্রিক চুলা তৈরি হয়েছে। এই ইলেকট্রিক চুলার মাধ্যমে আপনি সবকিছুই রান্না করতে পারবেন। অনেকেই আধুনিক প্রযুক্তির ইলেকট্রিক তোলা সম্পর্কে কোন ধারণা নেই। কোন রকম গ্যাসের কোন ঝামেলা ছাড়া কারেন্টের সাহায্যে রান্না হয়।

এই ইলেকট্রিক চুলার ২২০০ ওয়াট কারে নিয়ন্ত্রণ করে। এবং টাচ এবং বাটন এর সাহায্যে ইলেকট্রিক চুলা নিয়ন্ত্রণ করা হয়। এবং অতিরিক্ত যদি চুলা গরম হয়ে যায় তাহলে অটোমেটিক ভাবে ইলেকট্রিক চুলা অফ হয়ে যাবে। আপনি আরো অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা ইলেকট্রিক চুলা থেকে নিতে পারবেন।

ভিশন ইলেকট্রিক চুলার বিদ্যুৎ খরচ

ইলেকট্রিক তুলা কারেন্টের সাহায্যে চলার কারণে অনেকেই খরচ সম্পর্কে জানার চেষ্টা করে। কারণ এখন অতিরিক্ত বিদ্যুতের খরচ বৃদ্ধি হয়েছে। ভিশন ইলেকট্রিক চুলা বিদ্যুৎ খরচ খুব সাশ্রয়ী ভাবে পরীক্ষিত ভাবে তৈরি করা হয়েছে। এবং আপনি যদি সাশ্রয়ী এবং নিয়ম অনুযায়ী ব্যবহার করেন তাহলে আরো কম খরচে রান্না করতে পারবেন। আপনি একটি ছোট পরিবারের জন্য এক মাস রান্না করলে বিদ্যুৎ খরচ আনুমানিক ৭০০ থেকে ৮০০ টাকা খরচ হবে।

ভিশন ইলেকট্রিক চুলার ব্যবহারের নিয়ম

আপনি ভিশন ইলেকট্রিক চুলা ব্যবহারের আগে অবশ্যই আপনাকে কিছু নিয়ম-কানুন মানতে হবে। কারণ উল্টাপাল্টা ভাবে ইলেকট্রিক চুলা ব্যবহার করলে ক্ষতি হতে পারে এবং পুড়ে যেতে পারে। রান্নার ধরন অনুযায়ী চুলার পাশে ভোল্টেজ কম বেশি করার সুইচ রয়েছে। সেই সুইচে আপনাকে পরিমাণ মতো ভোল্টেজ দিতে হবে।

এবং চুলার প্লাগ কারেন্টের লাইন দেওয়ার সাথে সাথে ডিসপ্লের উপরের অংশে গরম হতে থাকবে। এবং পাতিল আপনাকে সঠিকভাবে চুলার উপরে বসাতে হবে। এবং রান্না করা শেষ হয়ে গেলে নিশ্চিত ভাবে ইলেকট্রিক চুলা বন্ধ করে রাখতে হবে। এই নিয়মগুলো ফলো করে ইলেকট্রিক চুলা ব্যবহার করবেন।

শেষ কথা

আপনারা যারা ভিশন ইলেকট্রিক চুলা কিনতে চাচ্ছেন। প্রত্যেকটা ইলেকট্রিক পণ্যের দাম বৃদ্ধি হওয়ার কারণে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সবারই সঠিক দাম জানা থাকে না। অনেকেই ইলেকট্রিক চুলাগুলো কেনার আগে অনলাইনের মাধ্যমে দাম জানার চেষ্টা করেন। আমরা এই পোস্টের সম্পূর্ণ আপডেট ভিশন ইলেকট্রিক চুলা দাম উল্লেখ করেছি। আশা করি আপনি আমাদের সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়েছেন এবং বিভিন্ন কোয়ালিটির ভিশন কোম্পানির ইলেকট্রিক চুলার দাম জানতে পেরেছেন। ধন্যবাদ

Ashraful Islam
Ashraful Islam
Articles: 254

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *