সৌদি আরবে সর্বনিম্ন বেতন কত ২০২৪

গত বছরের সৌদি আরবের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে যে, এ বছর থেকেই বেসরকারি বিভিন্ন খাতে ব্যক্তিদেরকে ন্যূনতম বেতন হবে ৪ হাজার রিয়াল। যা বাংলাদেশী টাকায় মুদ্রার মান অনুযায়ী এক লক্ষ টাকার উপরে। তবে বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরবে অবস্থিত বিভিন্ন শ্রমিকদের বেতন বর্তমানে পূর্ব থেকে কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে।

তবে সবসময়ই একজন ব্যক্তির কাজের উপর এবং তার দক্ষতার উপর ভিত্তি করে তার বেতন নির্ধারণ করে থাকে। বাংলাদেশ থেকে প্রতি বছর হাজার হাজার বাংলাদেশী নাগরিক সৌদি আরবে কাজের উদ্দেশ্যে ভ্রমণ করে থাকে। বেশিরভাগ বাংলাদেশী শ্রমিক হিসেবে সৌদি আরবে পৌঁছে থাকেন। তবে এসব কর্মীদের সৌদি আরবে সর্বনিম্ন বেতন কত হয়ে থাকে তা অনেকের অজানা। তাই এই পোস্ট থেকে বিস্তারিত তথ্য জানুন।

সৌদি আরবে সর্বনিম্ন বেতন কত

গত বছর ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বরের ৫ তারিখ থেকে সৌদি আরবের নূন্যতম বেতন কাঠামো ৪০০০ রিয়াল। বাংলাদেশি টাকায় ১ লাখ ১৭ হাজার ২১৭  টাকার। তবে বাংলাদেশের মুদ্রা অনুযায়ী টাকার মান একই থাকলে যে কোন সময় রিয়ালের পরিবর্তন হতে পারে।

বাংলাদেশ থেকে প্রচুর সংখ্যক নাগরিক শ্রমিক হিসেবে এবং ওই দেশে বিভিন্ন বেসরকারি কর্ম খাতে কাজ করে থাকেন। ঠিক ওই দেশে বেসরকারি খাতে নিযুক্ত ব্যক্তিদের বেতন ন্যূনতম ১ লাখ ১৭ হাজার ২১৭ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে বাংলাদেশের শ্রমিকদের জন্য বেতন কাঠামো ভিন্ন।

তবে বাংলাদেশ থেকে আগত এমন অনেক শ্রমিক রয়েছেন যারা বর্তমানে ন্যূনতম ৩৫ থেকে ৫০ হাজার টাকা বেতনের চাকরি করছেন। তবে বেশিরভাগই বাংলাদেশী নাগরিকদের বর্তমানে সৌদি আরবের মুদ্রা অনুযায়ী ন্যূনতম বেতন নির্ধারিত হয় ৫০০০০ থেকে ৭০ হাজার টাকা।

সৌদি আরবের শ্রমবাজারের সর্বনিম্ন মজুরি

বাংলাদেশের একজন শ্রমিকের সৌদি আরবের ন্যূনতম বেতন দেওয়া হয়ে থাকে ৩০০০ থেকে ৩৫০০ রিয়াল। যা বাংলাদেশী টাকায় ৯০০০০ থেকে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত। তবে সাধারণত সৌদি নাগরিকদের থেকে বাংলাদেশী শ্রমিকদের বেতন অনেক কম হয়ে থাকে।

কিন্তু বাংলাদেশী শ্রমিক যদি সৌদি আরবের কোন বেসরকারি খেতে নিযুক্ত থাকেন তাহলে সৌদি নাগরিকদের থেকে বেশি বেতন পেয়ে থাকবেন। আবার কোন বাংলাদেশী নাগরিক যদি কনস্ট্রাকশন রেস্টুরেন্ট এর কাজ করে থাকেন তাহলে সৌদি নাগরিকদের থেকে বেতন কম হয়ে থাকবেন। অর্থাৎ সম্পূর্ণ নির্ভর করছে তার কাজের উপর।

তবে সৌদি আরবের শ্রমবাজারের সর্বনিম্ন মজুরি ১ লক্ষ ১৭ হাজার ২১৮ টাকা। এবং বাংলাদেশী শ্রমিকদের ন্যূনতম বেতন ৭০ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকা। এছাড়াও কিছু কিছু বাংলাদেশী নাগরিক রয়েছেন যারা বর্তমানে ৪০০০০ থেকে ৫০ হাজার টাকা বেতনের চাকরি করছেন।

সৌদি আরবে কোন কাজের বেতন কত

ইলেকট্রিশিয়ান, মেকানিক, রেস্টুরেন্ট, ড্রাইভিং, ফুড প্যাকেজিং অটো মোবাইল ইত্যাদি সহ বিভিন্ন কাজের প্রচুর চাহিদা রয়েছে সৌদি আরবে। এছাড়াও এসি মেকানিক, ফ্যাক্টরি, কনস্ট্রাকশন, ক্লিনার, গৃহকর্মী কাজের সুযোগ রয়েছে। তবে সাধারণত এসব কাজের ন্যূনতম বেতন ১ লক্ষ থেকে দেড় লক্ষ টাকা নির্ধারিত হয়।

এবং কিছু কিছু ব্যক্তির কাজের উপর ভিত্তি করে অনেক কম আর বেশি হয়ে থাকে। যেমন রেস্টুরেন্টের বেতন ৫০০০০ থেকে ৭০ হাজার টাকা। আবার ইলেকট্রিশিয়ান এবং মেকানিক্যাল বেতন ন্যূনতম ১ লক্ষ থেকে এক লক্ষ 20 হাজার টাকা। তবে বেতন কিছু রকম হতে পারে ব্যক্তির দক্ষতার উপর নির্ভর করে।

ড্রাইভিং ফুড প্যাকেজিং এসব কাজের পেতে ন্যূনতম ৫০ হাজার থেকে ৮০ হাজার টাকা। তবে বড় বড় কর্মকর্তা, সরকারি কাজে নিয়োজিত, ব্যাংকার, এবং বিজনেসম্যান সহ এসব কাজের বেতন অন্যতম প্রতি মাসে 10 থেকে 15 লক্ষ টাকা। যেহেতু বাংলাদেশ থেকে বিভিন্ন শ্রমিক সৌদি আরবে পৌঁছে থাকেন। তাই তাদের বেতন সর্বনিম্ন ৪৫ হাজার থেকে শুরু করে ৯০০০০ টাকা নির্ধারিত হয়।

শেষ কথা

আশা করতেছি ইতিমধ্যে আজকের এই আলোচনা থেকে আপনারা সৌদি আরবে সর্বনিম্ন বেতন কত তা বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। আমরা বিস্তারিত ভাবে সৌদি আরবের বেতন নিয়ে আলোচনা করার চেষ্টা করেছি। ইতিমধ্যে হয়তো এখান থেকে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। এ পোস্ট আপনার কাছে উপকৃত মনে হলে অন্যদের মাঝে শেয়ার করে জানিয়ে দিবেন। ধন্যবাদ

Ashraful Islam
Ashraful Islam
Articles: 254

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *