কিরগিজস্তান কাজের ভিসা ২০২৪

কিরগিজস্তান হলো মধ্য এশিয়ার স্থলবেষ্টিত একটি রাষ্ট্র। এ দেশটির রাজধানীর নাম হলো বিশকেক। কিরগিজস্তান মধ্যে বিশকেক কে বৃহত্তম শহর বলা হয়। এই কি স্থান দেশে প্রায় ৯০% মানুষ মুসলিম। এবং কিরগিজস্তান এ তুর্কি ভাষাতে কথা বলে থাকেন সবাই। অনেকে রয়েছে তারা কিরগিজস্তান কাজের উদ্দেশ্যে যেতে চাচ্ছেন। প্রতি বছরে বিভিন্ন দেশ থেকে কিরগিজস্তানে কাজের জন্য শ্রমিক নিয়োগ করেন। বিশেষ করে সবাই কিরগিজস্তান কাজের ভিসা আবেদন করে থাকেন।

বাংলাদেশ থেকে অনেক মানুষ রয়েছে তারা কিরগিজস্থান কাজের ভিসার জন্য আবেদন করতে চাচ্ছেন। কিন্তু কত টাকা খরচ হবে এবং বেতন কত টাকা হবে সম্পর্কে কোন তথ্য জানেন না। কোন দেশে যাওয়ার আগে সেই দেশের বিভিন্ন তথ্য জেনে নেওয়া উচিত। আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে কিরগিজস্তান কাজের বিশ্বাস সহ গার্মেন্টস ভিসা সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য উল্লেখ করেছি। আপনি আমাদের সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়লে কিরগিজস্তান কাজের ভিসা সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য জানতে পারবেন।

কিরগিজস্তান কাজের ভিসা

বর্তমান কিরগিজস্তান ভিসার খরচ আগের তুলনায় একটু বেড়ে গেছে। এবং সব সময় চাইলেই আপনি কিরগিজস্তান পৌঁছাতে পারবেন না। কারণ সরকারি সার্কুলার অনুযায়ী আপনাকে আবেদন করতে হবে। প্রতিবছর এই নির্দিষ্ট একটি টাইমে বিভিন্ন দেশ থেকে শ্রমিক নিয়োগ করেন।

অনেক মানুষ আছে তারা কাজ করার জন্য কিরগিজস্তান যেতে চাচ্ছেন। সরকারিভাবে কিরগিজস্তান এর কাজের ভিসা পেয়ে গেলে সর্বোচ্চ ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত খরচ হতে পারে। এবং কোন দালাল অথবা এজেন্সির মাধ্যমে কিরগিজস্তান ভিসা করতে চাইলে ৪ লক্ষ টাকা থেকে ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত লাগবে।

কিরগিজস্থান গার্মেন্টস ভিসা

বিভিন্ন সময় কিরগিজস্তান গার্মেন্টস শ্রমিক নিয়োগ করে থাকে। কারণ তাদের গার্মেন্টস অনুযায়ী শ্রমিক কম পড়ে যায়। তখন তারা সরকারিভাবে গার্মেন্টস গুলোতে বিভিন্ন দেশ থেকে শ্রমিক নিয়োগ করে। আপনার যদি গার্মেন্টসের কাজে অভিজ্ঞতা থাকে তাহলে আপনি খুব সহজেই গার্মেন্টসের ভিসা পেতে পারেন। বর্তমান বাংলাদেশ থেকে গার্মেন্টস ভিসায় কিরগিজস্তান যেতে চাইলে সর্বনিম্ন ৩ লাখ টাকা থেকে ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত খরচ হতে পারে। এবং সময়ের ব্যবধানে টাকা কম বেশি হতে পারে।

কিরগিজস্তান গার্মেন্টস বেতন কত

সব সময় একজন শ্রমিকের কাজের উপর ভিত্তি করে বেতন নির্ধারণ করা হয়। আপনি যদি কিরগিজস্তান গার্মেন্টস ভিসা যেতে চান তাহলে আপনার অভিজ্ঞতার উপর বেতন দেওয়া হবে। আপনার যদি কাজের অভিজ্ঞতা ভালো থাকে তাহলে আপনি গার্মেন্টসে কাজ করে প্রতি মাসে ৫০ টাকা থেকে ৬০ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন উত্তোলন করতে পারবেন। এবং নতুন অবস্থায় অভিজ্ঞতা যদি না থাকে তাহলে ৩০ হাজার টাকা থেকে ৫০ টাকা পর্যন্ত বেতন নির্ধারণ করা হবে।

কিরগিজস্থান কাজের বেতন কত

বিশেষ করে কিরগিজস্তান ওয়ার্ক পারমিট ভিসা বেশি পাওয়া যায়। কারণ তাদের কাজ অনুযায়ী শ্রমিক অনেক কম। এজন্য ছয় মাসের পারমিট ভিসা সহজেই পাওয়া যায়। এবং আপনি কিরগিজস্তান পৌঁছানোর পর ভিসার মেয়াদ আরো বাড়াতে পারবেন। আপনার অভিজ্ঞতার উপর নির্ভর করে কাজের বেতন দেয়া হবে।

এবং কাজ অনুযায়ী বেতন কম বেশি হয়ে থাকে। আপনার যদি কন্সট্রাকশন কাজ হয় তাহলে প্রতি মাসে ৬০ হাজার টাকা থেকে ৭০ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন উত্তোলন করতে পারবেন। এবং অন্যান্য কাজে সর্বনিম্ন ৪০ হাজার টাকা থেকে ৬০ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন উত্তোলন করা সম্ভব।

কিরগিজস্থান যেতে কত টাকা লাগে

অনেকেই রয়েছেন কাজের উদ্দেশ্যে অথবা বিভিন্ন প্রয়োজন এর জন্য কিরগিজস্থান যেতে চাচ্ছেন। কিন্তু কিরগিজস্থান যেতে কত টাকা লাগে এই তথ্য জানেন না। সম্পূর্ণ আপনার ভিসার ক্যাটাগরির অনুযায়ী দাম কম বেশি হতে পারে। আপনি যদি বর্তমান কিরগিজস্থান যেতে চান তাহলে সর্বনিম্ন ২ লক্ষ টাকা থেকে ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত লাগতে পারে। এবং কি সম্পূর্ণ এজেন্সির উপর ভিত্তি করে অনেক সময় ভিসার দাম কম বেশি হয়।

শেষ কথা

আপনারা যারা কিরগিজস্তান যেতে চাচ্ছেন। কিন্তু কিরগিজস্তান সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য এবং ভিসার দাম কত সে সম্পর্কে কোন তথ্য জানেন না। আশা করি আপনি আমাদের সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ে কিরগিজস্তান কাজের ভিসা সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য জানতে পেরেছেন। ইতিমধ্যে আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে সম্পূর্ণ সঠিক তথ্য উল্লেখ করেছি। আপনার যদি আমাদের এই পোস্টটি পড়ে ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আশেপাশের বন্ধুদের সাথে শেয়ার করে তাদেরকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দেখার সুযোগ করে দিন। ধন্যবাদ

Ashraful Islam
Ashraful Islam
Articles: 253

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *