জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করার পদ্ধতি ২০২৪

এবছর বাংলাদেশী নতুন করে বহু ভোটার হয়েছেন। তাদেরকে বলা হয় নতুন ভোটার। এখন জেনে নেওয়ার বিষয় হচ্ছে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র বা ভোটার আইডি কার্ড প্রস্তুত হয়েছে কিনা। যদি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করতে চান তাহলে এই পোস্ট বিস্তারিত দেখুন। কেননা এখানে জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করার পদ্ধতি খুব সহজে আপনাদের জন্য উপস্থাপন করেছি।

বর্তমান সময়ে দুর্বৃত্তরা এবং প্রতারকরা অনেক সময় এই নকল জাতীয় পরিচয় পত্র বানিয়ে থাকে। এতে করে দেশের জন্য অনেকটা হুমকি শুরু হয়ে যায়। এজন্য সরকারি কর্মকর্তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় করে।

এমনকি নিজের ব্যক্তিগত পরিচয় পত্র সঠিক আছে কিনা এটিও জেনে নেওয়া অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। অনেক সময় দেখা যায় জাতীয় পরিচয় পত্রের ছবি স্বাক্ষর এবং জন্ম তারিখ ভুল হয়ে থাকে। এক্ষেত্রেও যাচাই করা অনেকটা গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়ায়। তাই অতি গুরুত্ব সহকারে জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করার পদ্ধতি এই পোস্ট থেকে বিস্তারিত দেখে নিন।

জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করার পদ্ধতি

অনেকে নতুন ভোটার হওয়ায় ধরুন স্মার্ট কার্ড এবং এনআইডি কার্ড চেক করতে অনলাইনে এসে থাকেন। এবং ইতিমধ্যে যাদের এন আইডি কার্ড সফল হওয়ার প্রক্রিয়ায়। এখন শুধুমাত্র আপনি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র অনুসন্ধান এবং যাচাই করতে চাচ্ছেন। তাহলে এই আর্টিকেল খুব সহজে উল্লেখিত জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করার পদ্ধতি জানতে পারবেন।

যারা অনলাইনে একদমই নতুন এবং জাতীয় পরিচয় পত্র অনুসন্ধান এবং যাচাই করার জন্য শুধুমাত্র একটি স্মার্টফোন রয়েছে। অথবা একটি বাটন ফোন রয়েছে,তারাও এক্ষেত্রে খুব সহজে জাতীয় পরিচয়পত্র বা ভোটার আইডি কার্ড চেক এবং যাচাই করতে পারবেন।

বিশেষ দ্রষ্টব্য: ঝুঁকিপূর্ণ ওয়েবসাইট বিবেচনায় ভূমি মন্ত্রণালয় এবং জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন ওয়েবসাইটকে জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য সেবা দেওয়া স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশনের জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগ। নাগরিকের বেক্তিগত তথ্য ঝুকিমুক্ত ও নিরাপদ রাখাতে এই পদক্ষেপ।

জাতীয় পরিচয় পত্র অনুসন্ধান

আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র বা এন আইডি কার্ড আসল নিশ্চিত করতে জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করার বিকল্প নেই। এছাড়াও আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র বা এন আইডি কার্ড ফেইক বা নকল থাকতে পারে। তাই এই সকল ফেইক জাতীয় পরিচয়পত্র সহজেই NID Card Verification করার মাধ্যমে যাচাই করা যায়।

তবে বর্তমানে যাদের পরিচয় পত্র বা এনআইডি কার্ড চেক করার বিভিন্ন থার্ড পার্টি অ্যাপ বা সাইট বন্ধ রয়েছে। বাংলাদেশের নাগরিকদের জন্য বিশেষ বার্তা এই যে, বাংলাদেশের জন্ম মৃত্যু ওয়েবসাইট এবং ভূমি মন্ত্রনালয়ের সরকারি সাইটেও বর্তমানে এই প্রক্রিয়া স্থগিত রয়েছে।

জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই

যদি একান্তই আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করতে চান। তাহলে আপনি ভূমি মন্ত্রণালয়ের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে আপনার এন আইডি কার্ড যাচাই করতে পারবেন। চাইলে মোবাইল দিয়ে এসএমএস এর মাধ্যমে জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করতে পারবেন। এছাড়াও নাম্বার দিয়েও আপনি  এনআইডি কার্ড যাচাই করতে পারবেন।

গুগল প্লে তে অন্তর্ভুক্ত বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ, এবং বিভিন্ন ওয়েবসাইট মাধ্যম ব্যবহার করে আপনি আপনার NID কার্ড যাচাই করতে পারবেন। যে যে মাধ্যম ব্যবহার করে ভোটার আইডি কার্ড যাচাই করতে পারবেন তার সবগুলো উপায় আজকের এই আর্টিকেলে উল্লেখ করেছি। তাই জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করার পদ্ধতি বিস্তারিত জানতে একটু নিচে হয়েছে প্রবেশ করুন।

ভোটার আইডি কার্ড যাচাই পদ্ধতি কয়টি?

বিভিন্ন পদ্ধতিতে আপনি আপনার ভোটার আইডি কার্ড যাচাই করতে পারবেন। অর্থাৎ আপনার ভোটার আইডি কার্ড সঠিক আছে কিনা। এবং ভোটার আইডি কার্ডে প্রয়োজনীয় তথ্য নির্ভুল আছে কিনা তার নির্ভুলভাবে যাচাই করতে জীবনের পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারবেন। সব থেকে সহজ একটি মাধ্যম হচ্ছে এসএমএসের মাধ্যমে ভোটার আইডি কার্ড যাচাই পদ্ধতি। অতঃপর আরো কয়েকটি পদ্ধতি রয়েছে। পদ্ধতি গুলো হল:

  • নির্দিষ্ট একটা অ্যাপের মাধ্যমে
  • porichoy.gov.bd ওয়েব অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে
  • নির্দিষ্ট একটা ফরমেটে এসএমএস করে
  • নাম্বার দিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই

নাম ও ঠিকানাসহ জাতীয় পরিচয়পত্র যাচাই

অতঃপর বাংলাদেশের ভূমি সেবা সাইট থেকে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র যাচাই করতে পারবেন। তবে বর্তমানে NID চেক সকল কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। তবে আপনি চাইলে এই প্রক্রিয়াটি বা এর মাধ্যম ব্যবহার করে আপনার আইডি কার্ড যাচাই করতে পারবেন। তবে এটিও সাময়িক সময়ের জন্য বন্ধ রয়েছে।

তবে এই বিষয়টি অনেকেই জানে না তাই খুব সহজে তাদের জন্য নিচে নাম ও ঠিকানা সহ জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করার ধাপ তুলে করা হলো। আশা করা যায় এই প্রক্রিয়ায় আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র খুব সহজেই যাচাই করতে পারবেন। ধাপগুলো নিম্নরূপ

প্রথম ধাপ:

প্রথমে বাংলাদেশ সরকারের ভুমিসেবা (https://ldtax.gov.bd/citizen/register)এই সাইটে ভিজিট করুন। এই সাইটে ভিজিট করার পর নিচের দেওয়া ছবিটির মত একটি দৃশ্য দেখাবে।

দ্বিতীয় ধাপ:

অতঃপর এই সাইটে প্রবেশ করার পর এখানে আপনার যে কোন একটি মোবাইল নম্বর দিন। তারপর জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর দিন এবং জন্ম তারিখ লিখুন। অবশ্যই এই ফরমেটে আপনাকে সকল তথ্য দিতে হবে- (mm/dd/yyyy)। তারপর পরবর্তী পদক্ষেপ বাটনে চাপ দিন বা ক্লিক করুন।

অতঃপর পরবর্তী পদক্ষেপ বাটনে ক্লিক করার পর ব্যক্তির নাম ও ছবি স্ক্রীনে দেখা যাবে। যদি আপনার পরিচয়পত্র সঠিক থাকে তাহলে এখানে সকল তথ্য দৃশ্যমান হবে। আর যদি আপনার তথ্য ফেক বা নকল হয়ে থাকে তাহলে তা দৃশ্যমান সমান হবে না।

অ্যাপ এর মাধ্যমে জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই

এই পদ্ধতি অনেকটা সহজ। সর্বপ্রথম একটি অ্যাপ ডাউনলোড করবেন। অতঃপর অ্যাপের ভিতরে প্রবেশ করে জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম্বার এবং জন্ম তারিখ সঠিকভাবে সাবমিট করুন। অতঃপর আপনার কাঙ্খিত ফলাফল দেখতে পারবেন।

খুব সহজে একটি প্রক্রিয়া,যে কেউ এই পদ্ধতির মাধ্যমে এনআইডি কার্ড যাচাই করতে পারবেন। অতঃপর অ্যাপ এর মাধ্যমে জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই পদ্ধতি উল্লেখ করা হলো।

  • অ্যাপটি ওপেন করে আইডি কার্ডের নাম্বার ও জন্মতারিখ দিয়ে যাচাই করুন বাটনে চাপলেই আইডি কার্ডের কিছু তথ্য প্রদর্শিত হবে।
  • এই Online GD app এর মাধ্যমে ব্যক্তির নাম, পিতা-মাতার নাম ও ঠিকানা যাচাই করা যায়।
  • এই অনলাইন জিডি অ্যাপ দিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করার জন্য নিচের বাম দিকের নিবন্ধন বাটনে প্রবেশ করুন। 
  • আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার এবং সঠিক জন্ম তারিখটি পূরণ করুন। 
  • যাচাই করুন বাটনে চাপলে আপনার সামনে কাঙ্ক্ষিত NID কার্ডের আরো কিছু তথ্য চলে আসবে।

porichoy.gov.bd ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে ‌nid check

Porichoy.gov.bd এটি একটি সরকারি সাইট। এই সাইট ব্যবহার করে নির্দ্বিধায় আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করতে পারবেন। porichoy.gov.bd দিয়ে একটি আইডি কার্ডের নাম, ছবি, মাতা – পিতার নাম ও ঠিকানা বের করা যায়। এছাড়াও বিভিন্ন কাজ এই ওয়েবসাইট দিয়ে সম্পূর্ণ করা যায়।

এসএমএস এর মাধ্যমে জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই

সব থেকে সহজ একটি পদ্ধতি হচ্ছে এসএমএসের মাধ্যমে এনআইডি কার্ড অথবা জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করা। আপনার যদি একটি স্মার্টফোন অথবা সে পুরনো যুগের  বাটন মোবাইল থাকে। তাহলেই আপনি জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করতে পারবেন।

আপনার স্মার্টফোন অথবা বাটন ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে এনআইডি নাম্বার চেক এসএমএস ফরমেট রয়েছে। অতঃপর দেখে নিন কিভাবে এসএমএস এর মাধ্যমে জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করবেন।

NID Number Check SMS Format:

এখানে যে ফরমেট উল্লেখ করা হবে, এই নিয়ম মোতাবেক আপনার যে কোন মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে সকল তথ্য দিতে হবে। অতঃপর সেই ফর্মেটটি হচ্ছে NID<Space>FROM NO<Space>dd-mm-yyyy.

  • প্রথমে আপনাকে মোবাইল অপশনে পৌঁছাতে হবে।
  • তারপর NID লিখতে হবে,এবং একটি স্পেস তারপর আপনার ফরম নাম্বার অথবা এন আই ডি নাম্বার লিখতে হবে।
  • এবং জন্ম তারিখ দিতে হবে।
  • জন্ম তারিখ দেওয়ার ক্ষেত্রে সবার আগে, তারিখ,তারপর মাস এবং তারপর বছর উল্লেখ করতে হবে।
  • অতঃপর এই ফরমেট NID<Space>FROM NO<Space>dd-mm-yyyy পূরণ করে 105 এই নাম্বারে পাঠিয়ে দিন।
  • সর্বশেষে 105 এই নাম্বার থেকে আপনার মোবাইল নাম্বার একটি রিপ্লাই আসবে। যেখানে আপনার বর্তমান আইডি কার্ডের অবস্থা দৃশ্যমান হবে।

মোবাইল দিয়ে Nid card যাচাই

যদি আপনার কি মোবাইল থেকে তাহলে অনলাইনে এসে বিভিন্ন অ্যাপ অথবা ওয়েবসাইট ব্যবহার করে আইডি কার্ড যাচাই করতে পারবেন। যেটা উপরে ইতিমধ্যে আপনাদেরকে দেখিয়ে দিয়েছি। তাই উপরের স্টেপ বা ধাপগুলো ফলো করুন।

এবং এই মোবাইল দিয়ে আরো একটি সহজ মাধ্যম হচ্ছে এসএমএস টাইপ করে এন আইডি কার্ড যাচাই করা। তাই যাদের মোবাইল রয়েছে এই(NID<Space>FROM NO<Space>dd-mm-yyyy পূরণ করে 105 এই নাম্বারে পাঠিয়ে দিন) প্রক্রিয়াটি আবার এমন করে এন আইডি কার্ড যাচাই করুন।

নাম্বার দিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই

নাম্বার দিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই বলতে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের নাম্বার এবং ভোটার হওয়ার পূর্বে আবেদনের একটি ফরম থাকে অর্থাৎ স্লিপ নম্বর। ফরম নাম্বার অথবা জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম্বার দিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র বা এনআইডি কার্ড যাচাই করা যায়।

এক্ষেত্রে অবশ্যই আপনার জন্ম তারিখ উল্লেখ করতে হবে। লক্ষ্য রাখুন জন্ম তারিখ যেন কোনভাবেই ভুল না হয়। যাচাই করার পর যদি আপনার কোন ইনফরমেশন আসে তাহলে সঠিক। আর যদি কোন ইনফরমেশন না আসে তাহলে বুঝতে হবে আপনার দেওয়া তথ্যগুলো ফেক।

আইডি কার্ড যাচাই করে কি কি জানা যাবে?

যদি কোন ব্যক্তির আইডি কার্ড যাচাই করা হয় তাহলে যে বিষয়গুলো প্রথমে লক্ষণীয় হবে তা নিচে বিস্তারিত উল্লেখ করা হলো। আর আইডি কার্ড যাচার ক্ষেত্রে উল্লেখিত তথ্যগুলো একদম প্রাথমিক। আর এই তথ্যগুলো দ্বারা একজন ব্যক্তিকে শনাক্তকরণ করা হয়ে থাকে। যেমন

  • ব্যক্তির ছবি
  • বাবার নাম
  • মায়ের নাম
  • জন্মতারিখ (বয়স)

আইডি কার্ড যাচাইয়ের ক্ষেত্রে উপরে উল্লেখিত তথ্য গুলো অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আপনার নাম আপনার জন্ম তারিখ পিতার নাম এবং মায়ের নাম জন্মতারিখ যাচাইয়ের ক্ষেত্রে সামনে ডিসপ্লে দেখাবে উঠবে। অতঃপর এই সকল তথ্যগুলো দ্বারা আপনার আইডি কার্ড নিশ্চিত করতে সহায়তা করবে। 

শেষ কথা

আশাকরি আজকের এই আলোচনা থেকে আপনারা নির্ভুল এবং খুব সহজভাবে জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই করার পদ্ধতি জানতে পেরেছেন। যদি এই পোস্ট থেকে আপনার উপকৃত হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনার আশেপাশের ব্যক্তিদেরকে শেয়ার করে জানিয়ে দিবেন। কেননা এই পোস্ট অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষ করে যারা নতুন এ বছর ভোটার আবেদন করেছিলেন এবং ভোটার হয়েছেন।  তাদের জন্য এই পোস্ট অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

Price Fact
Price Fact
Articles: 77

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *