পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে ২০২৪

আপনি পাঁচ বছরের এবং ১০ বছর মেয়াদী পাসপোর্ট ৪৮ পৃষ্ঠার এবং ৬৪ পৃষ্ঠার তৈরি করতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনাকে এই পাসপোর্ট তৈরি করার জন্য অনলাইনে আবেদন করতে হবে। তবে আবেদন প্রক্রিয়া আপনি নিজে নিজেই করতে পারবেন। তবে নিজে নিজে আবেদন করার ক্ষেত্রে কোন পাসপোর্ট তৈরি করতে কত টাকা ফি প্রদান করতে হয় তা জেনে রাখা অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়

তাই যারা সাধারণ ক্ষেত্রে এবং অতি জরুরিভাবে পাসপোর্ট তৈরি করতে চাচ্ছেন। এবং প্রত্যেক ক্যাটাগরির পাসপোর্ট তৈরির জন্য কত টাকা ফি প্রদান করতে হয় তা এই পোস্ট থেকেই বিস্তারিত জানতে পারবেন। এই পোস্টে পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে এবং পাসপোর্ট করতে হলে কি কি লাগে  তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। তাই একদম শেষ পর্যন্ত পোস্টটি বিস্তারিত দেখুন।

পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে

একটি পাসপোর্ট তৈরি করতে সর্বনিম্ন ৪০২৫ টাকার প্রয়োজন হয়। আর পাসপোর্ট তৈরি করতে সর্বোচ্চ প্রয়োজন হয় ১৩ হাজার টাকার। তবে আপনি ৪৮ পৃষ্ঠার পাসপোর্ট ৫ বছর এবং ১০ বছরের জন্য তৈরি করতে পারবেন। এবং ৬৪ পৃষ্ঠার পাঁচ বছর এবং ১০ বছরের জন্য পাসপোর্ট তৈরি করতে পারবেন।

তবে প্রত্যেকটি পাসপোর্ট তৈরি করতে সাধারণ, অতি সাধারণ এবং অতি জরুরী বিষয়গুলো বিবেচ্চ হয়। অর্থাৎ একটি পাসপোর্ট তৈরীর সময় অনুযায়ী এই তিনটি ভাগে ভাগ করা হয়েছে। তাই কোন ক্যাটাগর পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে বিস্তারিত এই পোস্ট থেকে জানুন।

ই পাসপোর্ট ফি কত টাকা

৫ বছর মেয়াদি ৪৮ পেজের ই পাসপোর্টের রেগুলার ফিস ৪০২৫ টাকা, এক্সপ্রেস ফিস ৬৩২৫ টাকা এবং সুপার এক্সপ্রেস ফিস ৮৬২৫ টাকা। ১০ বছর মেয়াদি ৪৮ পেজের ই পাসপোর্টের রেগুলার ফিস ৫৭৫০ টাকা, এক্সপ্রেস ফিস ৮০৫০ টাকা এবং সুপার এক্সপ্রেস ফিস ১০৩৫০ টাকা।

৫ বছর মেয়াদি ৬৪ পেজের ই-পাসপোর্টের রেগুলার ফিস ৬৩২৫ টাকা, এক্সপ্রেস ফিস ৮৬২৫ টাকা এবং সুপার এক্সপ্রেস ফিস ১২০৭৫ টাকা। ১০ বছর মেয়াদি ৬৪ পেজের ই পাসপোর্টের রেগুলার ফিস ৮০৫০ টাকা, এক্সপ্রেস ফিস ১০৩৫০ টাকা এবং সুপার এক্সপ্রেস ফিস ১৩৮০০ টাকা।

পাসপোর্ট করতে হলে কি কি লাগে?

একজন ব্যক্তির পাসপোর্ট তৈরি করতে অনেক গুরুত্বপূর্ণ এবং ব্যক্তিগত কাগজপত্রের প্রয়োজন হয়। যে কাগজপত্রগুলো অবশ্যই ওই ব্যক্তিকে অনলাইনে আবেদন করার সময় সাবমিট করতে হবে। তাই আপনাদের সুবিধার জন্য নিচে পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে তার পাশাপাশি কি কি কাগজপত্র লাগে তা নিচে উল্লেখ করা হলো।

  • আবেদন করার সময় জাতীয় পরিচয় পত্র অথবা জন্ম নিবন্ধন এর প্রয়োজন হবে।
  • পাসপোর্ট আবেদনের অনলাইন কপি দিতে হবে।
  • আপনার পাসপোর্ট ফি পরিশোধের রশিদ।
  •  নাগরিক সনদ নতুবা চেয়ারম্যানের সার্টিফিকেট।
  •  কোন পেছনে নিয়োজিত আছেন সেই পেশা প্রমাণের ডকুমেন্ট।

যাদের জাতীয় পরিচয় পত্র ১৮ বছরের নিচে হয়নি। তারা অবশ্যই তাদের জন্ম নিবন্ধন সাবমিট করার পাশাপাশি পিতা-মাতার ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি উল্লেখ করতে হবে।

৫ বছর মেয়াদি পাসপোর্ট করতে কত টাকা খরচ হয়

এই ৫ বছর মেয়াদি ৪৮ পৃষ্টার পাসপোর্ট তৈরি করতে তিনটি ক্যাটাগরির পাসপোর্ট তৈরি করতে পারবেন। সাধারণ পাসপোর্ট ,অতি সাধারণ পাসপোর্ট, অতি জরুরি পাসপোর্ট। তবে প্রত্যেক পাসপোর্ট তৈরির জন্য আলাদা আলাদা ফি নির্ধারিত। যেমনঃ

৫ বছর মেয়াদি  রেগুলার পাসপোর্ট ফি এক্সপ্রেস সেবা ফি সুপার এক্সপ্রেস ফি
৪৮ পৃষ্টার ৪০২৫ টাকা ৬৩২৫ টাকা ৮৬২৫ টাকা
৬৪ পৃষ্টার ৬৩২৫ টাকা  ৮৬২৫ টাকা  ১২০৭৫ টাকা

১০ বছর মেয়াদি পাসপোর্ট করতে কত টাকা খরচ হয়

এছাড়া ১০ বছর মেয়াদী পাসপোর্ট দুই ক্যাটাগরির করতে পারবেন। প্রথমত ৪৮ পৃষ্ঠার ১০ বছর মেয়াদী পাসপোর্ট, দ্বিতীয়ত ও ৬৪ পৃষ্ঠার ১০ বছর মেয়াদী পাসপোর্ট। এক্ষেত্রে পাঁচ বছর মেয়েদের মতো রেগুলার পাসপোর্ট ফি, এক্সপ্রেস সেবা, এবং সুপার এক্সপ্রেস সেবায় পাসপোর্ট  তৈরি করতে পারবেন। আর এ পাসপোর্ট তৈরি প্রক্রিয়া দুই থেকে ২১ দিনের মধ্যে সম্পন্ন হয়ে থাকে। নিচে এর মূল্য তালিকা উল্লেখ করা হলো।

১০ বছর মেয়াদি  রেগুলার পাসপোর্ট ফি এক্সপ্রেস সেবা ফি সুপার এক্সপ্রেস ফি
৪৮ পৃষ্টার ৫৭৫০ টাকা ৮০৫০ টাকা ১০৩৫০ টাকা
৬৪ পৃষ্টার ৮০৫০ টাকা  ১০৩৫০ টাকা  ১৩৮০০ টাকা

শেষ কথা

যারা ইতিমধ্যে জানতে চেয়েছিলেন পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে তারা হয়তো তাদের উত্তর পেয়ে গিয়েছেন। পাসপোর্ট অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়, তাই অতি জরুরী সময়ে যদি কারোর পাসপোর্ট তৈরি করার প্রয়োজন হয়। তাহলে অনলাইনে নিজে নিজেই এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারবেন। যদি এই পোস্ট থেকে আপনারা উপকৃত হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনার আশেপাশে থাকা ব্যক্তিদের কে শেয়ার করে জানিয়ে দিবেন। ধন্যবাদ

Ashraful Islam
Ashraful Islam
Articles: 254

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *