জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করার নিয়ম

আপনার কাছে যদি ১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন সনদের নম্বর গুলো থাকে তাহলে খুব সহজে আপনি অনলাইন থেকেই নতুন করে জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করতে পারবেন। এই ডাউনলোড করার প্রক্রিয়া একদম সহজ, আরো সহজ হবে যদি আমাদের এই পোস্টে উল্লেখ করা জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করার নিয়ম বিস্তারিত দেখে নেন। যে ব্যক্তির জাতীয় পরিচয় পত্র বা ভোটার আইডি কার্ড এখনো তৈরি হয়নি সে ব্যক্তির জন্য জন্ম নিবন্ধন অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

অর্থাৎ এই জন্ম নিবন্ধন একজন ব্যক্তির বা একজন শিশুর নাগরিকত্ব লাভ করে। অর্থাৎ ২০০৪ প্রণয়নে জন্ম সনদ অত্যাবশ্যকে করা লক্ষ্যে সরকার নতুনভাবে কাজ করে। তার প্রত্যেককে জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করতে হয়। অর্থাৎ আপনি যদি জন্ম নিবন্ধন আবেদন করে থাকেন। এবং আবেদন প্রক্রিয়া শেষ হয়ে থাকে তাহলে আমাদের এই আর্টিকেল থেকে জন্ম নিবন্ধন ডাউনলোড করার নিয়ম বিস্তারিত দেখে নিন।

জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করার নিয়ম

এই জন্ম নিবন্ধন ডাউনলোড করার সবথেকে সহজ নিয়ম হচ্ছে আপনার কাছে জন্ম নিবন্ধন সনদের ১৭ ডিজিটের নম্বর থাকা। এবং আপনার জন্ম তারিখ সঠিকভাবে থাকা। যদি এই দুটি তথ্য আপনার কাছে থাকে তাহলে আমাদের দেওয়া উল্লিখিত নিয়ম দেখেই আপনি এই মুহূর্তের মধ্যে জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

আর অনলাইনে প্রতিনিয়ত হাজার হাজার মানুষ এই জন্ম নিবন্ধন এর ডাউনলোড করার নিয়ম সম্পর্কে জানতে চান। তবে এই গুগলে আরো অন্যান্য নিয়ম জানতে পারলেও আমাদের এখান থেকে খুব সহজ একটি নিয়ম এবং ধাপ গুলো দেখতে পারবেন। তাই অল্প সময়ের মধ্যে এবং খুব সহজ ভাবে আপনার জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি অথবা ডাউনলোড করতে চান তাহলে এই পোস্ট শেষ পর্যন্ত দেখুন।

জন্ম নিবন্ধন সনদ কি?

বাংলাদেশ অন্তর্ভুক্ত যেকোনো সন্তান জন্মের পর সরকারি খাতায় সর্বপ্রথম নাম লেখাকেই জন্ম নিবন্ধন বলে। একটি দেশের আইনগত সন্তান হিসেবে স্বীকৃতি পেতে এ জন্ম নিবন্ধন প্রথম ধাপ অনুসরণ করে। পরবর্তীতে এই জন্ম নিবন্ধন দিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র ড্রাইভিং লাইসেন্স, বিভিন্ন স্কুল কলেজের সার্টিফিকেট তৈরি করা হয়ে থাকে। এক কথায় এই জন্ম নিবন্ধন অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ একজন ব্যক্তি বা একটি শিশুর জন্য।

এছাড়াও এই জন্ম নিবন্ধন বলতে নবজাতকের একটি নাম ও একটি জাতীয়তা নিশ্চিত করতে এই জন্ম নিবন্ধন হচ্ছে প্রথম আইনগত ধাপ। এমনকি জন্ম নিবন্ধন প্রতিটি শিশুসহ বয়স্কদেরও একটি অধিকার। অর্থাৎ জন্ম নিবন্ধনের মধ্যদিয়ে একটি শিশু একটি নাম লাভ করে যা সারাজীবন তাকে একটি পরিচিতি দেয়। অতঃপর কিভাবে আপনার আবেদনকৃত জন্ম নিবন্ধন অনলাইন থেকে ডাউনলোড করবেন তা জেনে নিন। এবং জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করার নিয়ম বিস্তারিত এই পোস্ট থেকে দেখে নিন।

জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড

আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ অনলাইনে নিজে নিজেই ডাউনলোড করতে পারবেন। এজন্য কোন কম্পিউটার অপারেটরের দোকানে আপনাকে যেতে হবে না। এবং কোন টাকা খরচ হবে না। এই প্রক্রিয়া আপনার মোবাইল দিয়েও করতে পারবেন। এজন্য আপনাকে স্মার্টফোন এবং ইন্টারনেট কানেকশন লাগবে।

তারপর এই আপনাকে এই(https://everify.bdris.gov.bd/) ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে ১৭ ডিজিটের নাম্বার সঠিকভাবে বসিয়ে। জন্ম তারিখ ইনপুট করে সার্চ বাটনে ক্লিক করলেই আপনার জন্ম নিবন্ধন ডাউনলোড করার অপশন পেয়ে যাবেন। অতঃপর আপনার কিবোর্ডে অবস্থিত ctrl+p একসাথে চেপে ধরুন অথবা ডাউনলোড করুন যদি প্রিন্টার থাকে প্রিন্ট করুন।

জন্ম নিবন্ধন পিডিএফ ডাউনলোড

অর্থাৎ আপনার জন্ম নিবন্ধন পিডিএফ ডাউনলোড অথবা অনলাইন কপি সংগ্রহ করতে এই(https://everify.bdris.gov.bd/) সাইটে আপনাকে অবশ্যই প্রবেশ করতে হবে। আর এই পোস্ট থেকে জন্ম নিবন্ধন পিডিএফ ডাউনলোড করে প্রিন্ট করতে পারবেন। এবং এই জন্ম নিবন্ধন সনদ যে কোন জায়গায় আপনি খুব সহজেই ব্যবহার করতে পারবেন।

অথবা এ প্রক্রিয়া কিভাবে অবলম্বন করতে হয় তা নিচে বিস্তারিত উল্লেখ করেছি। আর খুব সহজে যদি জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করতে চান তাহলে নিচের দেওয়া ধাপগুলো প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত অনুসরণ করুন। আশা করা যায় আপনি এই প্রক্রিয়া খুব সহজেই অনুসরণ করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন যাচাই করণ

নিচে জন্ম নিবন্ধন ডাউনলোড করার জন্য যে ধাপগুলো উল্লেখ করা হয়েছে। এই একই ধাপ কর অনুসরণ করে আপনি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করতে পারবেন এবং চেক করতে পারবেন। এক্ষেত্রে যারা অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করার পাশাপাশি শুধুমাত্র জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে চাচ্ছেন।

তারা নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করলে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন এবং চেক করতে পারবেন। এমনকি এই প্রক্রিয়ায় আপনি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন অথবা চেক করতে পারবেন। তাহলে আর দেরি না করে নিজের ধাপগুলো অনুসরণ করা যাক।

ধাপ ১ঃ জন্ম নিবন্ধন ওয়েবসাইট প্রবেশ

জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করার ওয়েবসাইট হচ্ছে(https://everify.bdris.gov.bd/)। তাহলে সর্বপ্রথম আপনি এই ওয়েবসাইটের আগে প্রবেশ করুন। প্রবেশ করার পর নিশ্চয় দেওয়া ছবিটি আপনি দেখতে পারবেন। অতঃপর সেখানে আপনি দেখতে পারবেন বার্থ রেজিস্ট্রেশন নাম্বার। এবং জন্ম তারিখ উল্লেখ করার একটি ফাঁকা ঘর। এবং তার নিচে দেখতে পারবেন একটি ক্যালকুলেশন রয়েছে। ক্যালকুলেশন সম্পূর্ণ করে নিচের ফাঁকা ঘরে উত্তর বসাতে হবে। অতঃপর সার্চ বাটন ক্লিক করতে হবে। যদি এ প্রক্রিয়া নিজে নিজে করতে না পারেন তাহলে পরবর্তীতে লক্ষ্য করুন।

ধাপ ২ঃ জন্ম নিবন্ধন নাম্বার প্রদান করুন

অতঃপর নিজের ছবির লক্ষ্য করুন। সেখানে Birth registration number এর ফাঁকা ঘরে আপনার জন্ম নিবন্ধন এর ১৭ ডিজিট নম্বরটি বসিয়ে দিন। এই ধাপ শেষ এবং পরবর্তী অনুসরণ করুন।

এরপর আপনাকে Date of Birth (YYYY-MM-dd) এই নিয়মে পূরণ করতে হবে নিচের দেওয়া ফাঁকা ঘরে। প্রথমে বছর উল্লেখ করতে হবে। তারপর মাস উল্লেখ করতে হবে। তারপর তারিখ উল্লেখ করতে হবে। অতঃপর পরবর্তী ধাপ অনুসরণ করুন।

ধাপ ৩ঃ ক্যাপচা পুরন করুন

এখানে ক্যাপ্টা বলতে একটি ক্যালকুলেশন রয়েছে। অর্থাৎ এই ক্যালকুলেশন আপনাকে সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে। এখানে আপনাকে যোগ করতে বলা হয়েছে। এখানে ৪১+৫০ যোগ করতে বলা হয়েছে। অর্থাৎ এর ফলাফল নিচে লিখবেন ৯১। তবে আপনার ক্ষেত্রে অন্য calculation আসতে পারে। তাই আপনার সামনে যেই ক্যালকুলেশন আসবে সেই ক্যালকুলেশন অনুযায়ী যোগ করে নিচের দেওয়া সার্চ বাটনে ক্লিক করুন। শেষ,আপনার কাজ শেষ অতঃপর আপনার জন্ম নিবন্ধন ডাউনলোড করুন।

অনলাইন জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড

অতঃপর উপরের ধাপ গুলো অনুসরণ করার পর আপনার নিচের দেওয়া ছবিটির মত সকল তথ্য দেখাবে। যদি আপনার প্রদান কৃত তথ্য ভুল না হয়ে থাকে তাহলে এই নিচের দেওয়া ছবিটি মত তথ্য দেখতে পারবেন। আর যদি কোন তথ্য ভুল প্রদান করে থাকেন তাহলে সেখানে কোন তথ্য আসবে না।

অতঃপর পেইজটি প্রিন্ট করুন বা PDF হিসেবে Save করতে পারেন।

হারিয়ে যাওয়া জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করবেন কিভাবে?

আপনার হারিয়ে যাওয়া জন্ম নিবন্ধন যদি পুনরায় ডাউনলোড করতে চান তাহলে এই (https://everify.bdris.gov.bd/)সাইটে প্রবেশ করে খুব সহজভাবে আপনার জন্ম নিবন্ধন ডাউনলোড করে নিন। তবে পূর্ব উল্লেখিত নিয়ম গুলো যথাযথ মেনে চলুন। আপনার যেমন নিবন্ধন নম্বর এবং জন্মতারিখ সঠিকভাবে সেখানে উপস্থাপন করুন। অতঃপর আপনার জন্ম নিবন্ধন ডাউনলোড করে নিন।

ইউনিয়ন পরিষদ জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করবেন কিভাবে?

আপনি অনলাইন থেকে যে জন্ম নিবন্ধন ডাউনলোড করতে পারছেন ইউনিয়ন পরিষদ থেকে সেই হুবহু বা একই জন্ম নিবন্ধন ডাউনলোড করতে পারবেন না। এক্ষেত্রে আপনি যদি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে জন্ম নিবন্ধন করতে চান তবে সেখানে আপনাকে আবেদন করতে হবে সকল তথ্য প্রদান করে।

ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন যাচাই

উপরে যে প্রক্রিয়ার বা ধাপ আপনাদেরকে দেখানো হয়েছে। ওই প্রক্রিয়া অবলম্বন করে আপনার জন্ম নিবন্ধন যাচাই অথবা চেক করতে পারবেন। এক্ষেত্রে পূর্বের মতো এই https://everify.bdris.gov.bd/সাইটে প্রবেশ করুন। এবং পূর্বের মতো আপনার জন্ম নিবন্ধন নম্বর এবং জন্ম তারিখ উল্লেখ করুন। অতঃপর সার্চ বাটনে ক্লিক করলেই ডিজিটাল নিবন্ধন যাচাই করা হয়ে যাবে। সার্চ বাটনে ক্লিক করার পর আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য সেখানে দেখতে পারবেন। যদি সকল তথ্য সঠিকভাবে থাকে।

শেষ কথা

আশা করতেছি আপনারা এই পোস্ট থেকে অনেকটা উপ্রকৃত হয়েছেন। অতঃপর একজন ব্যক্তি কিভাবে তার জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করবেন তার বিস্তারিত নিয়ম এখানে উল্লেখ করেছি। যদি জন্ম নিবন্ধন সনদ ডাউনলোড করার নিয়ম এ পোস্ট থেকে দেখে উপকৃত হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনার আশেপাশের ব্যক্তিদেরকে এই পোস্ট শেয়ার করতে জানিয়ে দেবেন। ধন্যবাদ

Leave a Comment