ইতালি যেতে কত টাকা লাগে ২০২৪

এই দেশ ইউরোপীয় ইউনিয়ন ভুক্ত একটি দেশ। তাই বাংলাদেশসহ বিশ্বের অন্যান্য দেশের মানুষ এই ইউরোপীয় দেশগুলোতে যেতে খুব আগ্রহ প্রকাশ করে থাকে। বিশেষ করে ইতালিতে পৌঁছাতে অনেকেই বিভিন্ন পদক্ষেপ এবং আগ্রহ প্রকাশ করে থাকেন। ইতালির রাজধানী হচ্ছে রোম। দেশটির সীমানাক্ষেত্রটি ৩,০১,৩৩৮ বর্গ কিলোমিটার অর্থাৎ১,১৬,৩৪৬ বর্গ মাইল এলাকা জুড়ে ছাড়ানো। এখন আপনি যদি এই ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশ ইতালিতে যেতে চান,তাহলে আপনাকে কিছু পদক্ষেপ এবং অনেক টাকা খরচ করতে হবে। তবে চলুন জেনে নেওয়া যাক ইতালি যেতে কত টাকা লাগে।

এছাড়াও আজকের আলোচনা থেকে জানতে পারবেন ইতালি ভিসা খরচ কত,ইতালি কাজের ভিসা খরচ কত। এবং টুরিস্ট ভিসায় ইতালি যেতে কত টাকা লাগে,স্টুডেন্ট,সিজনাল ও স্পন্সর ভিসায় যেতে কত টাকা লাগে তা আজকের এই আর্টিকেলে বিস্তারিত জানতে পারবেন। তাই অহেতুক সময় নষ্ট না করে এই পোস্ট প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত বিস্তারিত পড়ুুন। আর জেনে নিন ইতালি যেতে কত টাকা লাগে ২০২৪।

ইতালি যেতে কত টাকা লাগে ২০২৪

বাংলাদেশ থেকে আপনি যে দেশে ভ্রমণ করতে যাবেন,পূর্ব থেকে প্রায় এক গুণ বিমান ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে। অর্থাৎ বাংলাদেশ থেকে পূর্বে ইতালিতে সর্বনিম্ন ৫০ থেকে ৬০ হাজার টাকায় একটি টিকিট পাওয়া যেত। বা তার থেকেও কম টাকায় একটি টিকেট খুব সহজেই ক্রয় করা যেত।

কিন্তু বর্তমান সময়ে বাংলাদেশ থেকে ইতালির রোমে বিমানে করে পৌঁছাতে সর্বনিম্ন ৬২ হাজার টাকা লাগে।এছাড়া বিমানের ক্যাটাগরির উপর ভিত্তি করে এই বিমানের টিকিটের মূল্য এর থেকে দ্বিগুণ বৃদ্ধি হয়ে থাকে। প্রতিদিন নিয়মিত কাতার এয়ারওয়েজ,ইতিহাদ এয়ার ওয়েজ,কুয়েত এয়ারওয়েজ ইতালির উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে থাকে।

অতএব বিভিন্ন এয়ারলাইন্সের টিকিটের মূল্য বিভিন্ন হয়ে থাকে। তবে সাধারণ ক্ষেত্রে ভিসা  প্রক্রিয়া থেকে শুরু করে ইতালি পৌঁছাতে কত টাকা খরচ হয় অর্থাৎ ইতালি যেতে কত টাকা লাগে তা আজকের আলোচনা বিস্তারিত জানতে পারবেন। তাই সম্পূর্ণ পোস্ট প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ুন।

ইতালি ভিসা খরচ

এখন প্রশ্ন হচ্ছে ইতালি যাওয়ার পূর্বে যে ভিসা করতে হয়, সে ভিসা খরচ কত টাকা লাগে। আপনি যদি সাধারণভাবে সৌদি ওমান মালয়েশিয়া ইত্যাদি দেশে পৌঁছাতে চান। তাহলে আপনার যে কোন কাজের ভিসার জন্য সর্বনিম্ন ৩ লাখ থেকে ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা খরচ হয়।

এখন আপনি যদি ইতালি যেতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনাকে ভিসা করতে হবে। তবে এই ভিসার  খরচ সম্পূর্ণ নির্ভর করে আপনি কোন ধরনের ভিসা লাগাচ্ছেন। তবে ইতালি যাওয়ার জন্য আপনি দুই ধরনের ভিসা পেয়ে যাবেন। প্রথম হচ্ছে সিজনাল ভিসা, আর দ্বিতীয় হচ্ছে নন সিজনাল ভিসা।

অর্থাৎ এক কথায় উত্তর হচ্ছে ইতালির জন্য ভিসা করতে হলে আপনাকে সর্বনিম্ন ৩ লাখ ৫০ হাজার থেকে ৪ লাখ ৫০হাজার টাকা লাগবে। তবে বর্তমানে এ ভিসা খরচ অনেকটা বেশি হয়ে গিয়েছে। অর্থাৎ আপনি যদি কোন এজেন্সি দ্বারা ইতারে ভিসা করতে চান তাহলে মিনিমাম ১০ থেকে ১২ লক্ষ টাকা আপনাকে খরচ করতে হবে।

ইতালি কাজের ভিসা খরচ কত

ইতালি যাওয়ার জন্য আপনি বিভিন্ন ধরনের ভিসা পেয়ে যাবেন। আর এ প্রত্যেক ভিসা  তৈরি করতে আলাদা আলাদা খরচ হবে। আপনি যদি ইতালি কাজের ভিসা করতে চান তাহলে সর্বনিম্ন আপনাকে ৩ থেকে ৪ লাখ টাকা খরচ হবে।তবে এটি যদি সরকারিভাবে করে থাকেন তাহলে ৩ লাখ থেকে ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকার মধ্যে করতে পারবেন।

আর যদি বেসরকারিভাবে অর্থাৎ বেসরকারি কোন প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ইত্যাদি কাজের ভিসা সংগ্রহ করে থাকেন তাহলে মিনিমাম আপনাকে ৬ থেকে ৭ লক্ষ টাকা খরচ করতে হবে। তবে কিছু কিছু এজেন্সি আপনার কাছ থেকে ৮ থেকে ১০  লক্ষ টাকা রাখতে পারে। 

ইতালির সিজনাল ভিসায় যেতে কত  টাকা লাগে

আপনি যদি ইতালিতে সিগনাল বিষয় পৌঁছাতে চান তাহলে আপনি সর্বোচ্চ ছয় মাস পর্যন্ত সেখানে বসবাস করতে পারবেন। তবে থেকেও বেশি থাকতে পারবেন তবে সেটা হবে ইলিগ্যাল এবং পলাতক  ভাবে থাকতে হবে। অর্থাৎ ৬০ দিন থেকে ৬ মাস পর্যন্ত ইতালি থেকে আপনাকে নিজ দেশে ফেরত আসতে হবে।

আর ইতালি যাওয়ার জন্য যে সিজনাল ভিসা সেটা সম্পূর্ণ নির্ভর করছে যে ব্যক্তি আপনার ভিসা করে দিচ্ছেন তার উপর। অনেক দালাল চক্র রয়েছেন যারা অল্প টাকায় ভিসা লাগিয়ে পরবর্তীতে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে দ্বিগুণ পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিয়ে থাকে। অর্থাৎ ইতালির সিজনাল ভিসা যেটা সর্বোচ্চ ৩ লাখ থেকে ৪ লক্ষ্য ৫০ হাজার টাকা খরচ হবে।

টুরিস্ট ভিসায় ইতালি যেতে কত টাকা লাগে

ভ্রমণ প্রিয় মানুষেরা ইতালি বছরে পর বছর পৌঁছে থাকেন। অর্থাৎ একটি নির্দিষ্ট মৌসুমে অনেকেই ভ্রমণের উদ্দেশ্যে ইতালি পৌঁছে থাকেন। অর্থাৎ যদি ভ্রমণের উদ্দেশ্যে ইতালি যেতে চান তাহলে আপনাকে টুরিস্ট ভিসা সংগ্রহ করতে হবে। তবে অনেকের প্রশ্ন একটু ইতালি টুরিস্ট ভিসা করতে কত টাকা খরচ হয়।

অর্থাৎ ইতালি যাওয়ার জন্য টুরিস্ট ভিসা করতে সর্বনিম্ন ৩ লক্ষ টাকা খরচ হবে। আর সর্বোচ্চ প্রায় ৪ থেকে ৫ লক্ষ টাকা খরচ হবে। কত টাকা খরচ হবে এই ভিসা করতে তার সম্পূর্ণ নির্ভর করছে যে ভিসা আপনাকে লাগিয়ে দিবে তার উপর। তাই সঠিক এবং পরিচিত মানুষ কাছ থেকে ভিসা তৈরি করুন। 

ইতালি স্টুডেন্ট ভিসায় যেতে কত টাকা লাগে

উচ্চশিক্ষা অর্জনের জন্য অনেকে বাংলাদেশ থেকে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন দেশে ভ্রমণ করে থাকেন। এখন আপনি যদি আপনার উচ্চশিক্ষা অর্জনের জন্য ইতালি যেতে চান তাহলে আপনার ভিসার কত টাকা খরচ হবে। হয়তো আপনি এই বিষয়ে সঠিক তথ্য জেনে থাকেন না। তবে এখানে আপনাদেরকে সঠিক তথ্য জানিয়ে দেবো।

আপনি যদি পড়াশোনা উদ্দেশ্যে স্টুডেন্ট ভিসায় ইতালি যেতে চান তাহলে আপনাকে সর্বনিম্ন ২ লক্ষ ৫০ হাজার থেকে ৩ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা খরচ করতে হবে। তবে পূর্ব থেকে বর্তমানে বিমান খরচ বৃদ্ধি হওয়ার কারণে ভিসা সহ বিভিন্ন আনুষঙ্গিক খরচ অনেকটা বৃদ্ধি পেয়েছে। অর্থাৎ আপনার সর্বমোট খরচ হবে ৩ লক্ষ থেকে ৪ লক্ষ টাকা।

ভারত থেকে ইতালি যেতে কত টাকা লাগে

ইন্ডিয়া বা ভারত থেকে ইতালি অর্থাৎ ইউরোপের যে কোন দেশে যদি পৌঁছাতে চান। তাহলে আপনার সর্বনিম্ন খরচ হবে ১০ লক্ষ টাকা। এছাড়াও বিজেপি আপনার ভারত থেকে ইতালি যেতে খরচ হতে পারে ১২ থেকে ১৫ লক্ষ টাকা। আর এসব বিষয়গুলো কখনো নির্দিষ্ট করে বলা সম্ভব নয়। তাই প্রতিনিয়ত আমরা এসব তথ্য আপডেট করে থাকি। 

দুবাই থেকে ইতালি যেতে কত টাকা লাগে

সকল কার কার্যক্রম সম্পন্ন করার পর আপনি যদি দুবাই থেকে ইতালি যেতে চান তাহলে সর্বনিম্ন আপনার খরচ হবে ৫থেকে ৬ লক্ষ টাকা। এছাড়া এ থেকে বেশি খরচ হতে পারে যদি দুবাই থেকে ইত্যাদি পৌঁছাতে চান। তাই যার কাছ থেকে ভিসা তৈরি করবেন অবশ্যই বিশ্বস্ত ব্যক্তি যেন হয়। পরিচিত এবং বিশ্বস্ত ব্যক্তি না হলে আপনার ভিসার খরচ অনেকাংশে বেড়ে যেতে পারে। তো বিভিন্ন কারণে এই খরচ ৭ থেকে ৮ লক্ষ টাকা হতে পারে।

বাংলাদেশ থেকে ইতালি যাওয়ার উপায়

খুব সহজে আপনি বাংলাদেশ থেকে ইতালি যেতে পারবেন। শুধুমাত্র আপনাকে কয়েকটি প্রক্রিয়া অবলম্বন করতে হবে। তাই ধাপে ধাপে কয়েকটি প্রক্রিয়া আপনার জন্য উল্লেখ করতে যাচ্ছি। অতএব বাংলাদেশ থেকে ইতালি যাওয়ার কিছু উপায় করা হলো।

ইউরোপীয় দেশগুলোতে অনেকেই পৌঁছাতে চান কিন্তু বিভিন্ন আনুষঙ্গিক সমস্যার কারণে এসব দেশগুলোতে কেউ পৌঁছাতে পারেন না। তবে কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করলে খুব সহজেই বাংলাদেশ থেকে ইতালি পৌঁছাতে পারবেন।

প্রথমত আপনাকে আপনার ভিসা নির্বাচন করতে হবে। অর্থাৎ কোন ভিসা যেতে চাচ্ছেন সেই ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন। অতঃপর আপনার পরিচিত কোন দালাল দ্বারা ভিসার আবেদন শুরু করুন। আপনি ইতালির বিভিন্ন ভিসা সংগ্রহ করতে পারবেন এবং সেখানে আবেদন করতে পারবেন। অতঃপর আবেদন করুন।

অতঃপর আপনার পাসপোর্ট সঠিকভাবে সংগ্রহ করুন। এবং কোন বিষয়ে বাংলাদেশ থেকে ইতালি যেতে চাচ্ছেন। সেই তথ্য আপনার দালালকে জানিয়ে দিন। অতঃপর অনলাইন বা যে কোন মাধ্যমে ফরম পূরণ করে আবেদন করুন। 

বাংলাদেশ থেকে ইতালি যেতে কত সময় লাগে

এই বাংলাদেশ থেকে ইতালির মোট দূরত্ব হচ্ছে ৭২৯৫ কিলোমিটার। আর বাংলাদেশ থেকে বিভিন্ন ধরনের এবং বিভিন্ন ক্যাটাগরির বিমান প্রতিনিয়ত পৌঁছে থাকে। কত কম সময়ে বাংলাদেশ থেকে ইতালি পৌঁছাবেন তা বিমানের উপর সম্পূর্ণ নির্ভর করে।

যদি ওয়ান ওয়ে বিমান ব্যবহার করেন,অর্থাৎ বিমান যদি কোন বিমানবন্দরে না পৌঁছে সরাসরি গন্তব্যে পৌঁছে তাহলে সর্বনিম্ন আট ঘণ্টা সময় লাগবে। আর যদি মাঝে মাঝে অন্যান্য বিমানবন্দরে বিরতি নিয়ে থাকে তাহলে ২৪ ঘন্টা সময় লাগতে পারে।

শেষ কথা

আশা করতেছি আপনারা আমাদের এই পোস্ট থেকে ইতালি যেতে কত টাকা লাগে ২০২৪ জানতে পেরেছেন। এছাড়া উল্লেখ করেছি ইতালি কিভাবে যাওয়া যায়। ইতালি ভিসার দাম কত ইত্যাদি নিয়ে আলোচনা করেছি। যদি এই পোস্ট করে আপনারা উপকৃত হয়ে থাকেন তাহলে আপনার আশেপাশের ব্যক্তিদেরকে এই পোস্ট অবশ্যই শেয়ার করে জানিয়ে দেবেন।ধন্যবাদ

Ashraful Islam
Ashraful Islam
Articles: 254

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *