হজ্জ প্যাকেজ ২০২৪ খরচ

প্রতিবছর হজ করার উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ থেকে লক্ষাধিক মানুষ সৌদি আরব পৌঁছে থাকেন। হজ্জ হচ্ছে পুরো ইসলাম ধর্মে নির্ধারিত মূল পাঁচটি স্তম্ভের একটি। কিছু কিছু মানুষের জন্য হজ্জ করা ফরজ হিসেবে গণ্য হয়। আবার অনেকেই ওমরা হজ্জ করার জন্য সৌদি আরব পৌঁছে থাকেন।

তবে বাংলাদেশ থেকে হজের নতুন একটি প্যাকেজ এবং খরচ নির্ধারণ করে দিয়েছে। যা পূর্বে হজ্জ প্যাকেজের থেকে বর্তমানে বেসরকারি হজ্জ প্যাকেজ থেকে ৮৩ হাজার ২০০ টাকা কমানো হয়েছে। তবে এতেও বাংলাদেশের বেশিরভাগ মুসল্লিরা এই হজ্জ প্যাকেজ ক্রয় করতে বেশ হিমশিম খাচ্ছে।

নতুন করে হজ্জ প্যাকেজ নির্ধারিত হয়েছে ২০২৩ সালে। অর্থাৎ সরকারি হজ্জ প্যাকেজ খরচ এবং বেসরকারি হজ্জ প্যাকেজ খরচের অনেকটা পার্থক্য রয়েছে। তাই একদম নির্ভুল হজ্জ প্যাকেজ ২০২৪ খরচ বিস্তারিত সম্পর্কে জানতে এই পোস্ট একদম শেষ পর্যন্ত বিস্তারিত পড়ুন।

হজ্জ প্যাকেজ ২০২৪ খরচ

চলতি বছর চাঁদ দেখার উপর ভিত্তি করে ১৬ই জুন হজ্জ অনুষ্ঠিত হতে পারে। তবে বাংলাদেশ থেকে এ বছর সর্বোচ্চ হজে যেতে পারবেন ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন। এরমধ্যে সরকারি কোটা প্রায় ১০ হাজার এবং বেসরকারি কোটা প্রায় ১ লাখ ১৭ হাজার। অর্থাৎ এ বছর ২০২৪ সালের হজ যাত্রীদের জন্য বেসরকারি প্যাকেজ খরচ কমিয়ে নির্ধারণ করা হয়েছে ৫ লক্ষ ৮৯ হাজার ৮০০ টাকা।

এছাড়াও এ বছরের জন্য দ্বিতীয় প্যাকেজের খরচ নির্ধারণ করা হয়েছে সর্বোচ্চ ৮ লাখ ২৮ হাজার ৮১৮ টাকা। অর্থাৎ ২০২৩ সালের থেকে ২০২৪ সালের নতুন হজ প্যাকেজ অনুযায়ী ৮৩ হাজার ২০০ টাকা কমানো হয়েছে। আর সাধারণ সরকারি প্যাকেজ নির্ধারণ করা হয়েছে ৫ লাখ ৭৮ হাজার ৮৪০ টাকা। আর সরকারি বিশেষ প্যাকেজের মূল্য ৯ লাখ ৩৬ হাজার ৩২০ টাকা।

হজ্বের নতুন প্যাকেজ খরচ

এ হজের জন্য আবেদন প্রথমে ১৫ নভেম্বর থেকে ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত করা হলেও কয়েকটি দফায় এই হজের আবেদন প্রক্রিয়া বৃদ্ধি করা হয়। হজের আবেদন প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় দফায় ও সর্বশেষ চতুর্থ  দফায় ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত হজ্জের আবেদন কার্যকর করা হয়।

যেখানে সর্বশেষ হজের জন্য ৬ ফেব্রুয়ারি রাত ১১ টা পর্যন্ত সরকারি ও বেসরকারিভাবে নিবন্ধন করেছেন ৮৩ হাজার ১৫৫ হজযাত্রী। সৌদি সরকার বাংলাদেশী নাগরিকদের জন্য হজ্জ করার জন্য ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮টি কোটা নির্ধারণ করে দিলেও কাঙ্ক্ষিত ফলাফল হিসেবে আবেদন করতে পারেনি বাংলাদেশের নাগরিক।

এক্ষেত্রে প্রায় ৪৪ হাজার কোটার কাছাকাছি সৌদি সরকারকে ফেরত দেওয়া হবে। এবং এই হজ প্যাকেজ হবে সর্বোচ্চ ৩০ থেকে ৪৮ দিনের। এবং বাংলাদেশ নাগরিক খোঁজ যাত্রী হিসেবে সর্বোচ্চ মদিনা ৫ থেকে ৮ দিন পর্যন্ত অবস্থান করতে পারবেন। বেসরকারি এজেন্সির মাধ্যমে ন্যূনতম ৫ লাখ ৮৯ হাজার ৮০০  টাকা নির্ধারিত হলেও প্যাকেজ হিসেবে বিভিন্ন ক্যাটাগরি রয়েছে।

হজ্বের খরচ কমিয়ে দুই প্যাকেজ ঘোষণা

বেসরকারিভাবে সাধারণ প্যাকেজ ৫ লাখ ৮৯ হাজার ৮০০ টাকা। বিশেষ প্যাকেজ ৬ লাখ ৯৯ হাজার  ৩০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। অর্থাৎ সরকারি ব্যবস্থাপনার থেকে ১০ হাজার ৯৬০ টাকা বেশি। আর সরকারিভাবে সাধারণ প্যাকেজ ৫ লাখ ৭৮ হাজার ৮৪০ টাকা। আর বিশেষ হজ প্যাকেজ ৯ লাখ ৩৬ হাজার ৩২০ টাকা খরচ নির্ধারিত করা হয়েছে।

  • বেসরকারি খাতে সর্বনিম্ন প্যাকেজ ৫ লাখ ৮৯ হাজার ৮০০ টাকা।
  • আর দ্বিতীয় বেসরকারি প্যাকেজ ৮ লাখ ২৮ হাজার ৮১৮ টাকা।
  • সরকারি খাতে সাধারণ প্যাকেজে ৫ লাখ ৭৮ হাজার ৮৪০ টাকা।
  • বিশেষ প্যাকেজ ৯ লাখ ৩৬ হাজার ৩২০ টাকা।

শেষ কথা

আশা করতেছি ইতিমধ্যে আজকের এই আলোচনা থেকে আপনারা হজ্জ প্যাকেজ ২০২৪ খরচ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। এবং এই পোস্ট থেকে একদম নির্ভুল এবং সঠিক তথ্য জানতে পেরেছেন।  যদি এই পোস্ট আপনাদের কাছে উপকৃত মনে হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই অন্যদের মাঝে শেয়ার করে জানিয়ে দিন। ধন্যবাদ

Leave a Comment