গ্রিস যেতে কত টাকা লাগে

গ্রিস হলো ইউরোপ মহাদেশের বলকান উপদ্বীপের দক্ষিণ প্রান্তে এই রাষ্ট্র অবস্থিত। বর্তমান ইউরোপের মধ্যে জনপ্রিয় একটি দেশ হলো গ্রিস। অনেকেই এখন প্রচুর পরিমাণে গ্রীসে যাওয়ার চাহিদা দিন দিন বেঁড়েই চলেছে। সবাই এখন গ্রিসে যাওয়ার আগে বর্তমান খরচ সম্পর্কে জানার চেষ্টা করে। আগের তুলনায় বর্তমান গ্রিসের ভিসা খরচ অনেক বৃদ্ধি হয়েছে।

বাংলাদেশের নতুন অনেক এই গ্রিস এর ভিসা করার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করতেছে। সবাই এখন বিদেশ যাওয়ার আগে এজেন্সির প্রতারণা হতে বাঁচতে অনলাইন সঠিক খরচ জানার চেষ্টা করে। এবং গ্রিসে যাওয়ার খরচ আপনার ভিসা ক্যাটাগরির উপর নির্ভর করবে। বিভিন্ন কট্যাগরির ভিসা অনুযায়ী গ্রিস যেতে কত টাকা লাগে এই সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এই পোষ্টটি পড়তে থাকুন।

গ্রিস যেতে কত টাকা লাগে

বর্তমানে গ্রিসে যাওয়ার ভিসা চালু রয়েছে। এবং প্রত্যেক বছরে সরকারি ভাবে গ্রিসে শ্রমিক নিয়োগ করে থাকে। কারণ গ্রিসে প্রচুর পরিমাণ কাজের চাহিদা রয়েছে। নতুন করে অনেকে গ্রিসে চলে যাচ্ছে। বর্তমান বিভিন্ন ধরনের ভিসা পাওয়া যায়। আপনি যদি স্টুডেন্ট ভিসায় অথবা টুরিস্ট ভিসায় ইসে যান তাহলে খরচ হবে ৪ লক্ষ টাকা থেকে ৬ লক্ষ টাকা। এবং ভালো কোন কাজের উদ্দেশ্যে গ্রিসে যেতে চাইলে খরচ হবে ৮ লক্ষ টাকা থেকে ১০ লক্ষ টাকা।

গ্রিসের ভিসার দাম কত

প্রথমে আপনাকে ভিসার ক্যাটাগরি সিলেক্ট করতে হবে। প্রত্যেকেই নতুন করে গ্রীসে ভিসা আবেদন করার আগে দাম সম্পর্কে জানার চেষ্টা করে। কারণ বাংলাদেশে এখন দালাল চক্র অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। বিদেশের ভিসা করার কথা বলে অনেক সাধারণ গ্রাহকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। এ কারণে সবাই এখন ভিসা করার আগে সঠিক দাম জানতে চায়। অনেক ধরনের গ্রিসের ভিসা রয়েছে। আপনি সর্বোচ্চ ৫ লক্ষ টাকা থেকে ১০ লক্ষ টাকা বাজেট রাখলেই গ্রিসের ভিসা করতে পারবেন।

গ্রীস কৃষি ভিসা ২০২৪

অন্যান্য ভিসার তুলনায় বর্তমান গ্রিসে কৃষি ভিসার অনেক চাহিদা রয়েছে। কারণ গ্রিসে ফসলি জমি অনেক বেশি। তারা বিভিন্ন দেশের শ্রমিক দিয়ে প্রচুর পরিমাণে কৃষি কাজ করিয়ে থাকে। প্রত্যেক বছরে সরকারি ভাবে কৃষি কাজের জন্য শ্রমিক নিয়োগ করা হয়। এবং মালিকানাধীন এজেন্সির মাধ্যমে আপনি গ্রিসে কৃষি ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। বর্তমান গ্রীসের একটি কৃষি ভিসা করতে খরচ হবে প্রায় ৮ লক্ষ টাকা থেকে ৯ লক্ষ টাকা।

গ্রিস ওয়ার্ক পারমিট ভিসা

আপনি ওয়ার্ক পারমিট ভিসা গ্রিসে গেলে বিভিন্ন ধরনের কাজ করতে পারবেন। মূলত যে কোন কাজের উদ্দেশ্যে এই গ্রিসে যেতে চাইলে তারা আপনাকে ওয়ার্ক পারমিট ভিসা প্রদান করবে। গ্রীসে প্রচুর পরিমাণে বিভিন্ন কাজ রয়েছে। আপনি কোম্পানির কাজ থেকে থেকে শুরু করে আরো বিভিন্ন শ্রমিকের কাজ করতে পারবেন। কিন্তু ওয়ার্ক পারমিট ভিসা করতে খরচ হবে আপনার প্রায় ৭ লক্ষ টাকা থেকে ১০ লক্ষ টাকা। এবং সরকারিভাবে যদি ওয়ার্ক পারেন ভিসা পান তাহলে ৩ লক্ষ টাকার মধ্যে যেতে পারবেন।

বাংলাদেশ থেকে গ্রিসে যেতে কত টাকা লাগে

বিশেষ করে বাংলাদেশের মানুষের গ্রিসে যাওয়ার চাহিদা বেশি রয়েছে। কারণ বাংলাদেশে ভালো কর্মসংস্থান না থাকায় সবাই এখন ইউরোপ এর দেশে যেতে চায়। বর্তমান ইউরোপের খুব জনপ্রিয় দেশ হলো গ্রীস। গ্রিসে আপনি যে কোন কাজ করলেই ভালো টাকা বেতন উত্তোলন করতে পারবেন। প্রত্যেকেই বাংলাদেশ থেকে যাওয়ার আগে প্রথমেই খরচ সম্পর্কে জানার চেষ্টা করে। অর্থাৎ আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে কোন এজেন্সির মাধ্যমে যেতে চান তাহলে ভিসা অনুযায়ী খরচ হতে পারে সর্বোচ্চ ১০ লক্ষ টাকা।

শেষ কথা

আপনারা যারা কাজের উদ্দেশ্যে অথবা ভ্রমণ করার জন্য গ্রিস যেতে চাচ্ছেন। প্রত্যেকেই গ্রীসে যাওয়ার আগে প্রথমেই খরচ সম্পর্কে আইডিয়া নেওয়ার চেষ্টা করে। কারণ বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সবারই খরচ সম্পর্কে কোন ধারণা থাকে না। ইতিমধ্যেই আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে গ্রীসের বিভিন্ন ভিসার খরচ উল্লেখ করেছি। আশা করি আপনি আমাদের সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়েছেন এবং গ্রিস যেতে কত টাকা লাগে এই তথ্য জানতে পেরেছেন। ধন্যবাদ

Leave a Comment